ঢাকা, বাংলাদেশ || শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ || ৬ আশ্বিন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ জাসদ নেতা মিন্টু গ্রেফতার ■ ফের নির্বাচনের দাবিতে ইসিকে স্মারকলিপি দেবে ঐক্যফ্রন্ট ■ নতুন মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ রোববার ■ বিবিসি’র সেই ভিডিও নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী ■ বিদেশিদের বিএনপির ভরাডুবির কারণ জানালেন শেখ হাসিনা ■ বিশ্ব গণমাধ্যমে বাংলাদেশের নির্বাচন ■ সংবিধান লঙ্ঘনে ইসির বিচার দাবি খোকনের ■ শপথ গ্রহণে যাচ্ছে না ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্যরা! ■ আ’ লীগের দুই গ্রুপের কোন্দলে যুবলীগ নেতা নিহত ■ বিদেশি পর্যবেক্ষক ছিল একেবারেই আইওয়াশ ■ নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ায় গভীর উদ্বেগ টিআইবি’র ■  আ’লীগের জয়জয়কার, মুছে গেল বিরোধীরা
মুসলিম চৌধুরী নতুন সিএজি
দেশসংবাদ, ঢাকা :
Published : Sunday, 15 July, 2018 at 7:45 PM, Update: 21.07.2018 12:21:29 PM

মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) পদে নিয়োগ পেয়েছেন অর্থ সচিব মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী। রোববার সিএজি পদে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। এতে স্বাক্ষর করেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের প্রশাসন অধিশাখা-২ এর অতিরিক্ত সচিব তহমিনা বেগম। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সংবিধানের ১২৭(১) অনুচ্ছেদে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে মহামান্য রাষ্ট্রপ্রতি মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক পদে অর্থ সচিব মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরীকে নিয়োগ প্রদান করেছেন। এতে আরও বলা হয় শপথ গ্রহণের পর হতে এ নিয়োগ কার্যকর হবে।

মুসলিম চৌধুরী ১৯৮৪ ব্যাচের কর্মকর্তা হিসেবে ১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে অ্যাকাউন্টিং-এ অনার্সসহ মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে ফাইন্যান্স ও অ্যাকাউন্টিং- এ ডিস্টিংশনসহ মার্স্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি ২০০৫ সালের ২১ এপ্রিল সরকারের উপ-সচিব পদে পদোন্নতি পান। বিসিএস (নিরীক্ষা ও হিসাব) ক্যাডারের বিভিন্ন পদে এবং অর্থ বিভাগে উপ-সচিব, যুগ্ম-সচিব ও অতিরিক্ত সচিব পদে কর্মরত ছিলেন। এছাড়াও তিনি সরকারি আর্থিক ব্যবস্থাপনা সংস্কার কার্যক্রমে দীর্ঘদিন যুক্ত রয়েছেন। বর্তমানে উক্ত সংস্কার কার্যক্রম বাস্তবায়নে দক্ষতার সঙ্গে নেতৃত্বে দিচ্ছেন। অর্থ বিভাগ সূত্র জানায়, আর্থিক ব্যবস্থাপনা সংস্কার কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য মুসলিম চৌধুরী ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে জনপ্রশাসন পদক পান। আগামী ২৩ অক্টোবর তার সরকারি চাকরি থেকে অবসর গ্রহণের কথা ছিল।

সূত্র জানায়, সংবিধানের ১২৭ নং অনুচ্ছেদের বিধান মতে মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক এর পদ সৃষ্টি হয়েছে। রাষ্ট্রপতির উপর উক্ত পদে নিয়োগের ক্ষমতা অর্পিত হয়েছে। সংবিধানের ১২৭(১) অনুচ্ছেদের বিধান অনুযায়ী মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক তার দায়িত্ব গ্রহণের তারিখ হতে ৫ বছর বা ৬৫ বছর পূর্ণ হওয়ার মধ্যে যা আগে ঘটে সে পর্যন্ত তিনি তার পদে বহাল থাকবেন।

মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক হিসেবে কর্মরত মাসুদ আহমেদের চাকরির মেয়াদ গত ২৭ এপ্রিল পূর্ণ হয়েছে। তাই গত ২৮ এপ্রিল হতে বর্ণিত পদটি শূন্য রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সাংবিধানিক পদে একজন উপযু্ক্ত প্রার্থী জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া আবশ্যক। মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক পদের যোগ্যতা সম্পর্কে সংবিধান বা আইনে কোনো সুস্পষ্ট বিধান নেই। তবে এ পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে সাধারণত সচিব পদে কর্মরত বিসিএস (নিরীক্ষা ও হিসাব) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের প্রাধান্য দেয়া হয়ে থাকে। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ১১ জন মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক নিয়োগ করা হয়েছে তাদের মধ্যে একজন ছাড়া বাকি সবাই বিসিএস (নিরীক্ষা ও হিসাব) ক্যাডারের কর্মকর্তা ছিলেন।

দেশসংবাদ/এসকে

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft