ঢাকা, বাংলাদেশ || মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ || ২ আশ্বিন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ জাসদ নেতা মিন্টু গ্রেফতার ■ ফের নির্বাচনের দাবিতে ইসিকে স্মারকলিপি দেবে ঐক্যফ্রন্ট ■ নতুন মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ রোববার ■ বিবিসি’র সেই ভিডিও নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী ■ বিদেশিদের বিএনপির ভরাডুবির কারণ জানালেন শেখ হাসিনা ■ বিশ্ব গণমাধ্যমে বাংলাদেশের নির্বাচন ■ সংবিধান লঙ্ঘনে ইসির বিচার দাবি খোকনের ■ শপথ গ্রহণে যাচ্ছে না ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্যরা! ■ আ’ লীগের দুই গ্রুপের কোন্দলে যুবলীগ নেতা নিহত ■ বিদেশি পর্যবেক্ষক ছিল একেবারেই আইওয়াশ ■ নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ায় গভীর উদ্বেগ টিআইবি’র ■  আ’লীগের জয়জয়কার, মুছে গেল বিরোধীরা
মহাজোটের দখলে সিলেট নির্বাচনী মাঠ, ভোটের দিন জবাব দেবে ঐক্যেফ্রন্ট
দেশসংবাদ, সিলেট :
Published : Wednesday, 19 December, 2018 at 7:48 PM, Update: 21.12.2018 1:29:09 AM

বহুল প্রতীক্ষিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের প্রচারণা জমে উঠেছে। প্রতীক বরাদ্দ পায়ার পরপরই দেশের প্রতিটি নির্বাচনী আসনের প্রচারণায় নেমে পড়েছেন সব দলের প্রার্থীরা। বিশেষ করে জাতীয় নির্বাচনে ঢাকা, চট্টগ্রামের পরপরই সিলেট আওয়ামীলীগ, বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর অবস্থান জানতে সাধারন মানুষের আগ্রহ বেশি থাকে। ফলে সবার দৃষ্টি এখন এসব আসনের দিকে।

নির্বাচন সামনে রেখে বর্তমানে আনন্দমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে সিলেট বিভাগের সবকটি উপজেলাতে। তবে সিলেটের নির্বাচনী মাঠে নানা কারণে বিএনপিসহ ঐক্যেফ্রন্টের নেতাকর্মীরা প্রচারণা চালাতে পারছে না। ফলে আওয়ামী লীগ বা মহাজোটের প্রার্থীদের নেতাকর্মীদের দখলে রয়েছে ভোটের মাঠ। এখানে তাদের প্রচারণাই বেশি লক্ষ্য করা গেছে। স্থানীয়দের ঐক্যেফ্রন্টের নেতাকর্মীদের দাবি সরকারি দলের নেতাকর্মীদের দাপট, হামলাও মামলার কারণে তারা মাঠে নামতে পারছে না। তবে তাদের মতে মাঠে এখন মহাজোট থাকলে ভোটের দিন নিরবে ঐক্যেফ্রনেটর পক্ষেই রায় দিবে সাধারন মানুষ।

সিলেট নির্বাচন কমিশন সূত্রে পাওয়া হিসেব অনুযায়ী, সিলেট বিভাগের ১৯টি আসনে নৌকা ও ধানের শীষের প্রতীকসহ অন্যান্য প্রতীকে মোট ১১৪ জন প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে সিলেট জেলার ৬টি আসনে মোট ৪০ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এই ৪০ প্রার্থীকে ইতোমধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে জেলা নির্বাচন অফিস থেকে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১০ জন প্রার্থী সিলেট-১ আসনে। আর সবচেয়ে কমসংখ্যক মাত্র ৪ জন প্রার্থী সিলেট-৬ আসনে। তাদের মধ্যে সিলেট-১ আসনে দশ জন, সিলেট-২ আসনে সাত জন, সিলেট-৩ আসনে ছয় জন, সিলেট-৪ আসনে পাঁচ জন, সিলেট-৫ আসনে আট জন এবং সিলেট-৬ আসনে চার জন।

সিলেট জেলা নির্বাচন অফিস থেকে দেয়া তথ্যানুযায়ী সিলেট-১ আসনে প্রতিদ্ব›দ্বীরা হলেন- আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে ড. আবুল কালাম আব্দুল মোমেন (নৌকা), বিএনপির খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির (ধানের শীষ), মাহবুবুর রহমান চৌধুরী (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. রেদওয়ানুল হক চৌধুরী (হাতপাখা), ইসলামী ঐক্যজোটের (আইওজে) মুহ্ম্মদ ফয়জুল হক (মিনার), ন্যাশনাল পিপুলস পার্টির ইউসুফ আলী (আম), বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির উজ্জ্বল রায় (কোদাল), বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর প্রণব জ্যোতি পাল (মই), বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মো. আনোয়ার উদ্দিন বুরহানাবাদী (হারিকেন), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মাওলানা নাসির উদ্দিন (বটগাছ)।

সিলেট-২ আসনে মহাজোটের ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী (লাঙ্গল), বিএনপির তাহসিনা রুশদীর লুনা (ধানের শীষ), খেলাফত মজলিসের মুহাম্মদ মুনতাছির আলী (দেয়াল ঘড়ি), গণফোরামের মোকাব্বির খান (উদীয়মান সূর্য), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. আমির উদ্দিন (হাতপাখা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. মনোয়ার হোসাইন (আম), বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ এর মো. মোশাহিদ খান (টেলিভিশন)।

সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী (নৌকা), বিএনপির শফি আহমদ চৌধুরী (ধানের শীষ), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের এম এ মতিন বাদশা (হাতপাখা), মো. উছমান আলী (লাঙ্গল), খেলাফত মজলিসের মো. দিলওয়ার হোসাইন (দেওয়াল ঘড়ি), বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান (রিকশা)। সিলেট-৪ আসনে আওয়ামী লীগের ইমরান আহমদ (নৌকা), বিএনপির দিলদার হোসেন সেলিম (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির আহমেদ তাজ উদ্দিন তাহ রহমান (লাঙ্গল), বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মনোজ কুমার সেন (কোদাল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. জিল্লুর রহমান (হাতপাখা)।

সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগের হাফিজ আহমদ মজুমদার (নৌকা), ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের উবায়দুল্লাহ ফারুক (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির সেলিম উদ্দিন (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. নুরুল আমিন (হাতপাখা), গণফোরামের বাহার উদ্দিন আল রাজী (উদীয়মান সূর্য), বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মো. শহিদ আহমদ চৌধুরী (হারিকেন), ইসলামী ঐক্যজোটের এমএ মতিন চৌধুরী (মিনার) এবং ফয়জুল মুনীর চৌধুরী (স্বতন্ত্র)। সিলেট-৬ আসনে আওয়ামী লীগের নুরুল ইসলাম নাহিদ (নৌকা), বিএনপির ফয়সল আহমদ চৌধুরী (ধানের শীষ), বিকল্পধারা বাংলাদেশের সমশের মবিন চৌধুরী (কুলা) এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. আজমল হোসেন (হাতপাখা)।

এসব আসনে অধিকাংশ স্থান ঘুরে দেখা গেছে, ঐক্যেফ্রন্টের চেয়ে মহাজোটের প্রার্থীদের নেতাকর্মীরা ব্যাপক প্রচরণা চালাচ্ছে। এক্ষেত্রে ঐক্যেফ্রন্টের নেতাকর্মীদের মাঠে নামতে দিচ্ছে না মহাজোটের প্রার্থীদের নেতাকর্মীরা। ফলে তারা অনেকটা নীরবে ভোটের প্রাচারণা চালাচ্ছে।

স্থানীয় নেতাকর্মী ও সাধারন ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সিলেটের ভোটের মাঠ এখন মহাজোটের দখলে থাকলেও সাধারন মানুষ ঐক্যেফ্রন্টের প্রার্থীদেই ভোট দেবে। কারণ এবার নেতাকর্মীদের পাশাপাশি সাধারন মানুষও তাদের ছাড় দিতে রাজী নয়। সিলেট ১ আসনের ঐক্যেফ্রন্টের প্রার্থী খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, আমার নেতাকর্মীদের প্রাচারণা করতে দেয়া হচ্ছে না। তারপরে আমরা নানা নির্যাতন সহ্য করে প্রাচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। কারণ আমাদের যতই বাধা দেয়া হোক না কেন আমাদের সাথে সাধারন মানুষ আছে। আর ভোটের ধানের শীষে ভোট দিয়ে দিন তারা এর কঠিন জবাব দেবে। সিলেট-২ আসনে মহাজোটের (লাঙ্গল) ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী  বলেন, আমরা সাধারন মানুষের ব্যাপক সারা পাচ্ছি। আর সাথে তো মহাজোটের নেতাকর্মীরা আছেই। তাই এবার এ আসনে লাঙ্গলেরই বিজয় হবে। তবে ঐক্যেফ্রন্টসহ অন্যদলগুলোর প্রার্থীদের কোন ধরনের বাধা দেয়া হচ্ছে না বলে তিনি দাবি করেন।

সিলেট-৩ আসনে মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী (নৌকা) বলেন, আমরা ঐক্যেফ্রন্টের নেতাকর্মীদের প্রচারণায় বাধা দিচ্ছি না। তারা তাদেরমক প্রচারণা চালাচ্ছে আমরা আমাদের মত প্রচারণা চালাচ্ছি। তবে সাধারন মানুষ নৌকার পক্ষে থাকায় ঐক্যেফ্রন্টের নেতাকর্মীরা আমাদের বিরুদ্ধে অপ্রপ্রচার চালাচ্ছে। এই আসনের বিএনপির শফি আহমদ চৌধুরী (ধানের শীষ) বলেন, আমাদের পোষ্টার ঠিকমত লাগাতে দিচ্ছে না। তার সাথে তো মামলা হামলা আছেই। সব মিলিয়ে আমরা আমাদের চাহিদামত প্রচারণা চালাতে পারছি না। তবে ভোটের দিন সাধারন মানুষ এর জবার দিবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

দেশসংবাদ/এসআই

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft