ঢাকা, বাংলাদেশ || সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ || ১ আশ্বিন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ জাসদ নেতা মিন্টু গ্রেফতার ■ ফের নির্বাচনের দাবিতে ইসিকে স্মারকলিপি দেবে ঐক্যফ্রন্ট ■ নতুন মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ রোববার ■ বিবিসি’র সেই ভিডিও নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী ■ বিদেশিদের বিএনপির ভরাডুবির কারণ জানালেন শেখ হাসিনা ■ বিশ্ব গণমাধ্যমে বাংলাদেশের নির্বাচন ■ সংবিধান লঙ্ঘনে ইসির বিচার দাবি খোকনের ■ শপথ গ্রহণে যাচ্ছে না ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্যরা! ■ আ’ লীগের দুই গ্রুপের কোন্দলে যুবলীগ নেতা নিহত ■ বিদেশি পর্যবেক্ষক ছিল একেবারেই আইওয়াশ ■ নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ায় গভীর উদ্বেগ টিআইবি’র ■  আ’লীগের জয়জয়কার, মুছে গেল বিরোধীরা
যুক্তরাষ্ট্রের বিবৃতিতে মর্মাহত বাংলাদেশ
দেশসংবাদ ডেস্ক :
Published : Sunday, 23 December, 2018 at 8:39 PM, Update: 23.12.2018 8:47:27 PM

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া বিবৃতির বিষয়ে মর্মাহত বাংলাদেশ। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, নির্বাচন পরিচালনা করছে বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন, যা একটি সাংবিধানিক ও স্বাধীন প্রতিষ্ঠান। কারা নির্বাচন পর্যবেক্ষণের সুযোগ পাবেন তা নির্ধারণ করার জন্য প্রতিষ্ঠানটির বিধিবিধান রয়েছে। পর্যবেক্ষণে ইচ্ছুক ‘এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ফ্রি ইলেকশনস’ (এএনএফআরইএল) যে তাদের আবেদন প্রত্যাহার করে নিয়েছে, তা একেবারেই তাদের নিজস্ব বিষয়।

রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় এই নির্বাচনে বাংলাদেশের নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করছে। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন স্বাধীনভাবে এই নির্বাচন পরিচালনা করছে। নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আর্ন্তজাতিক পর্যবেক্ষকদের স্বাগত জানায় বাংলাদেশ। বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার ১৭৫ জন বিদেশি পর্যবেক্ষক এই নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য আবেদন করেছে। 

এসব পর্যবেক্ষক কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী অ্যাক্রেডিটেশনও করেছে। এএনএফআরএলসহ এসব পর্য‌বেক্ষকদের ভিসা রয়েছে আবেদন প্রক্রিয়ার মধ্যে। এই পরিপ্রেক্ষিতে এএনএফআরএল-এর পর্যবেক্ষক ভিসা আবেদন বাতিলের সিদ্ধান্ত তাদের নিজস্ব বিষয়। এছাড়া এএনএফআরএল পর্যবেক্ষকদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক ভিসা আবেদনকারী ইতোমধ্যেই অনুমোদিত হয়েছে এবং বাকিগুলি প্রক্রিয়াধীন। 

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এএনএফআরএল-এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে বাংলাদেশের বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘অধিকার’ রয়েছে। এটা সবাই জানে যে, অধিকার একটি পক্ষপাতমূলক ও বাংলাদেশের স্বার্থবিরোধী সংস্থা, বিশেষ করে আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে সংস্থাটি কাজ করছে। 

গত অক্টোবর-ডিসেম্বর, ২০১৮-তে অধিকারের প্রতিবেদনে দেখা যায়, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের একজন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে এই সংস্থার উচ্চ পদে নিয়োগ দিয়েছে। এই হিসেবেই সংস্থাটি নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য অবস্থান হারিয়েছে। কেননা গণপ্রতিনিধিত্ব আইন ১৯৭২ সালের ৯১ (সি) (১) ধারা অনুযায়ী কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত কোনো ব্যক্তি পর্যবেক্ষক হিসেবে বিবেচিত হতে পারেন না।   

বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে বিশ্বের সবার প্রতি শ্রদ্ধা জানায়। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অনুযায়ী বাংলাদেশ তার সব বন্ধু ও অংশীদারদের কাছ থেকে গঠনমূলক বিবৃতিকে স্বাগত জানায়।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আন্তর্জাতিক ও দেশীয় পর্যবেক্ষকদের সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত বাংলাদেশ।

২২ ডিসেম্বর এএনএফআরএল-এর পর্যবেক্ষকদের বাংলাদেশ সরকার একটি বিশ্বাসযোগ্য আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণ মিশন চালানোর মতো যথাযথ সময়ের মধ্যে পরিচয়পত্র ও ভিসা দিতে না পারায় যুক্তরাষ্ট্র হতাশ হয়েছে বলে বিবৃতি দেওয়া হয়।  
সেই বিবৃতিতে আরো বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র সরকার ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে ওই মিশনে অর্থায়ন করেছিল। যথাসময়ে পরিচয়পত্র ও ভিসা না পেয়ে আনফ্রেল তাদের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ মিশন বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে। ওই বিবৃতির প্রতিবাদে বাংলাদেশ সরকার থেকে রোববার এ বক্তব্য দেওয়া হলো। 

থাইল্যান্ডভিত্তিক নির্বাচন পর্যবেক্ষক জোট এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ফ্রি ইলেকশনে এশিয়ার ১৬ টি দেশের প্রায় ২৫টি সংস্থা রয়েছে। এই জোটে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে রয়েছে মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’।

দেশসংবাদ/এসএম

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft