ঢাকা, বাংলাদেশ || সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯ || ১১ ভাদ্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ ভিটেবাড়ি ফেরত না দিলে মিয়ানমারে যাবে না রোহিঙ্গারা ■ সৌদির বিমান ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা ■  রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে আর মূলধন দেবে না সরকার ■  পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ-পদোন্নতির নীতিমালা চূড়ান্ত ■ জাতীয় মহিলা পার্টির সভানেত্রী সালমা, সম্পাদিকা নাজমা ■ রাখাইনে তুমুল সংঘর্ষ, সেনাবাহিনীর বিমান হামলা ■ ২৫ দিনে হাসপাতালে ৪৫ সহস্রাধিক ডেঙ্গু রোগী ■ খেলাপি ঋণ এখনই কমার সুযোগ নেই ■ রাতের অন্ধকারে জামালপুর ত্যাগ করেছেন ডিসি ■ কেড়ে নেয়া হচ্ছে সেই ডিসির শুদ্ধাচার সনদ ■ কিশোর গ্রুপ স্টার বন্ডের ১৭ সদস্যের কারাদণ্ড ■ দুদকে এসে ব্যর্থতার দায় নিলেন সৈয়দ ইফতেখার
তাহিরপুরে কয়েকটি অবৈধ পশুরহাট বসিয়ে চাঁদবাজী
দেশসংবাদ, তাহিরপুর
Published : Wednesday, 7 August, 2019 at 10:36 PM, Update: 07.08.2019 11:01:25 PM

তাহিরপুরে কয়েকটি অবৈধ পশুরহাট বসিয়ে চাঁদবাজী, সরকার  হারাচ্ছে অর্ধকোটি টাকা রাজস্ব। অতচ স্থানীয়  প্রশাসন নিরব দর্শকের ভুমিকা পালন করছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ জেলার  তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে পথে চোরাইভাবে নিয়ে আসা গরুর  চালান  এবাং ওই চোরাচালানীদের আর অবৈধভাবে পশুরহাট বসানো চাঁদবাজ চক্রের নিজেদের স্বার্থ হাসিল করার জন্য সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে তাহিরপুর  সীমান্তের জিরো পয়েন্ট থেকে প্রায় ১০০ গজ দুরত্বে বড়ছড়া  জয় বাংলা বাজারে এবং সীমান্তের জিরো  পয়েন্ট  থেকে মাত্র আধা কিলোমিটার দুরত্বে শান্তিপুর বাজারে একটি পশুর হাটসহ মোট ৩টি অবৈধ কোরবানির পশুর হাট বসাতে তৎপরতা শুরু করেছে সরকারবিরোধী ও সুবিধাভোগী একটি চাঁদবাজ চক্র। কিন্তু প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে নিরব ভূমিকা পালন করছে। এতে করে যেমন সরকার অর্ধকোটি টাকা রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে। এ নিয়ে উপজেলাজুড়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তেমনি সরকারের রাজস্ব দিয়ে বৈধভাবে পশুর হাট ইজারাদাররা বেপক লোকসানের সম্মুখীন হচ্ছে।

অবৈধভাবে বসানো পশুর হাট গুলোর বন্ধ করার জন্য দাবি জানিয়েছেন উপজেলার বৈধ ইজারাদারগন সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের জনতাবাজার,শান্তিপুর বাজার ও উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের  বড়ছড়া জয় বাংলা বাজারে কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে আবৈধভাবে পশুর হাট  বসিয়ে ফায়দা লুটছে একটি চাঁদবাজ সিন্ডিকেট চক্র। এদিকে, ঈদকে সামনে রেখে বিজিবি কঠোর নজরদারী রাখলেও একটি স্বার্থান্বেষী মহলের সহযোগিতায় সীমান্তের চিহ্নিত চোরাচালানীরা তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে রাতের আধারে নিয়ে আসা ভারতীয় চোরাই গরু  বিক্রি করছে বিভিন্ন বাজারে । যদি ওই তিনটি বাজারে কোরবানির গরুর হাট বসানো হয়, তাহলে ভারত থেকে চোরাইপথে অবৈধভাবে আসা দুবর্ল ও রোগাক্রান্ত গরুতে সয়লাব হবে উপজেলা। আর সরকার, ব্যবসায়ী এবং ইজারাদাগণও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাই প্রয়োজনীয় কঠোর ব্যবস্থা নেবার দাবি সর্বস্তরের জনসাধারণের।

এছাড়া উপজেলার বাদাঘাট বাজার ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রানকেন্দ্র এবং দীর্ঘ দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে গরুর হাট হিসেবে ব্যাপকভাবে পরিচিত। যার ফলে এ বাজারটি ইজারাদারগণ এ বছর  সাড়ে ১৯ লক্ষ টাকা সরকারকে রাজস্ব দিয়ে ইজারা আনেন। এখন এই বাজার রেখে আরো বাজার হলে ইজারাদারগণ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। ফলে আগামীতে আর কেউই সরকারকে অধিক রাজস্ব দিয়ে বাদাঘাট বাজারটির ইজারা আনবার আগ্রহ দেখাবে না। বাদাঘাট বাজারের ইজারাদার হুমায়ুন কবির ক্ষোভের সাথে বলেন, বাদাঘাট বাজারটি আমরা সরকারিভাবে সকল নিয়ম মেনে ইজারা এনেছি। এখন যদি এই বাজারের এক কিলোমিটার দূরে আরো দু’টি বাজার বসায় আমি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। আমাদের ক্ষতি করার জন্য চোরাচালানীদের সুবিধা দিয়ে নিজেদের চাঁদাবাজি আর স্বার্থ হাসিল করার জন্য মানববন্ধন আর বিভিন্নভাবে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করছে একটি মহল। আমরা এর নিন্দা জানাই। সেই সাথে অবৈধভাবে জনতা বাজার ও শান্তিপুর বাজারে গরুর হাট বসানো বন্ধের দাবি জানাই।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান করুণ সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন, প্রতি বছরই উপজেলায় সর্বসাধারণের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ঈদ উপলক্ষে উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যানগণের উপস্থিতিতে আলোচনার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে গরুর হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এবার চেয়ারম্যানগণ মাসিক সমন্বয় সভায় হঠাৎ করেই কোনো কারণ ছাড়া সভা বয়কট করায় কোনো বিষয়েই রেজুলেশনের করা হয়নি। যার জন্য এই অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এর দায়-দায়িত্ব চেয়ারম্যানদেরকেই নিতে হবে।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ বলেন, এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবার জন্য বলছি।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/আলো

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft