ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ || ৭ ভাদ্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ সারেদেশে বজ্রপাতে নিহত ১২ ■ রাখাইনে প্রবেশ করতে চায় ইউএনএইচসিআর ■ এমপির পছন্দের ব্যক্তিই হবেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি ■ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিকে আরো ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ■ রোহিঙ্গাদের ফেরত না যাওয়ার নেপথ্যে রয়েছে যার প্রভাব ■  ভারতের সঙ্গে কোনো আলোচনা নয় ■ বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন জিয়াউর রহমান ■ বাংলাদেশের অশুভ শক্তিকে পরাভূত করতে হবে ■ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৯৪ ডাক্তার ও ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী ■ তিনদিনে ৬৫৮ বাড়িতে অভিযান, ডেঙ্গু পাওয়া গেছে ৫৬ বাড়িতে ■ ভারত নয় পাকিস্তান যুদ্ধের চেষ্টা করছে ■ ছুটিতে গেলেন সেই তিন বিচারপতি
গাংনীতে বিদ্যুৎ বিভ্রাট, গ্রাহকদের ভোগান্তি চরমে
লিটন মাহমুদ, মেহেরপুর :
Published : Friday, 9 August, 2019 at 11:02 PM

মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে গ্রাহকদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। দিনে-রাতে এমনকি প্রতিঘন্টাতেও  ৩-৪ বার বিদ্যুৎ  সরবরাহ  বন্ধ হয়ে থাকে। ফলে উপজেলার আবাসিক সংযোগ গ্রাহকরা পড়েছে চরম ভোগান্তিতে।অন্যদিকে ‘জনোনেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এই শ্লোগানকে মিথ্যা প্রমান করতে মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির  গাংনী জোনাল অফিসের ডিজিএম নিরাপদ দাসের সদিচ্ছার কারনে আজও অনেকে বিদ্যুৎ সংযোগ পাইনি।গাংনীতে ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারনে ফ্রিজে রাখা মাছ,মাংশ সহ অন্যান্য খাবার নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

এমনকি ফ্রিজ, টিভি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।দিনে -রাতে বার বার বিদ্যুৎ বিভ্রাটে অফিসিয়াল কার্যক্রম তথা আবাদী জমিতে সেচ কার্য্যে সমস্যাসহ রাইচ মিল বা কল কারখানাতে উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।পৌর শহরে কিছুটা বিদ্যুৎ পাওয়া গেলেও উপজেলার গ্রামাঞ্চলে অধিকাংশ সময়ই বিদ্যুৎ থাকে না বলে জানা গেছে।তাছাড়া বিদ্যুতের ভূতুড়ে বিল নিয়ে অভিযোগতো রয়েছেই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বিদ্যুৎ গ্রাহক জানান,বিদ্যুৎ কখন আসবে,বা কখন যায় কেউ জানে না।এভাবেই চলছে বিদ্যুৎ সেবা। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ছাতিয়ান গ্রামের ওমায়ের হোসেন, বামন্দী নিশিপুরের আরজ আলী দীর্ঘদিন বিদ্যুৎ অফিসে আবেদন নিবেদন করেও বিদ্যুৎ সংযোগ পাইনি।পাশাপাশি বামন্দী গো-হাট পাড়ার জমসেদ আলী, বাক্কার আলী,ফরিদা খাতুন, সখের ভানু, গোয়ালগ্রাম গ্রামের সাকিল, চৌগাছা মসজিদ পাড়ার ফয়েজউদ্দীন সেখ, দহরম সেখ, হাফিজুল  ইসলাম, আলমগীর হোসেন,এনামুল হকসহ অনেকেই ১ বছর আগে পোলের আবেদন করেও বিদ্যুৎ লাইন তাদের ঘরে নিতে পারেনি। পার্শ্ব লাইন থেকে তারা অধিক খরচে বিদ্যুৎ ব্যবহারে বাধ্য হচ্ছে।কবে নাগাদ তাদের নিজস্ব বিদ্যুৎ ব্যবস্থা হবে কেউ জানে না। অথচ সরকারের উন্নয়নকে বাঁধাগ্রস্ত করতে ডিজিএম নানা অযুহাত দেখাচ্ছে। 

এব্যাপারে গাংনী জোনাল অফিসের ডিজিএম নিরাপদ দাস অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার  করে বলেন, যখন শত ভাগ বিদ্যুত  দেওয়া হয়েছিলো তখন গ্রহকরা কোথাই ছিলো,বিদ্যুতের পোল, ট্রান্সফরমার পরিবর্তন এবং লাইন স্থানান্তরের  কারনে কিছুটা বিঘœ ঘটছে।এছাড়া বর্ষা মৌসুমে লাইনের পার্শ্বে গাছের ডালপালা কাটার জন্য মাঝে-মধ্যে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতে হয়।আর বিদ্যুতের পোল স্থাপনের কাজ ঠিকাদারের কারনে কিছুটা  বিলম্ব হচ্ছে। অল্প দিনের মধ্যেই পোল স্থাপন করে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে। তিনি আরো বলেন,মোবাইলে সব কথা হবেনা অফিসে আসেন কথা হবে। 
       
দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এসআই

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft