ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ || ৮ ভাদ্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ সারেদেশে বজ্রপাতে নিহত ১২ ■ রাখাইনে প্রবেশ করতে চায় ইউএনএইচসিআর ■ এমপির পছন্দের ব্যক্তিই হবেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি ■ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিকে আরো ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ■ রোহিঙ্গাদের ফেরত না যাওয়ার নেপথ্যে রয়েছে যার প্রভাব ■  ভারতের সঙ্গে কোনো আলোচনা নয় ■ বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন জিয়াউর রহমান ■ বাংলাদেশের অশুভ শক্তিকে পরাভূত করতে হবে ■ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৯৪ ডাক্তার ও ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী ■ তিনদিনে ৬৫৮ বাড়িতে অভিযান, ডেঙ্গু পাওয়া গেছে ৫৬ বাড়িতে ■ ভারত নয় পাকিস্তান যুদ্ধের চেষ্টা করছে ■ ছুটিতে গেলেন সেই তিন বিচারপতি
ক্রেতা বিক্রেতায় সরগরম নতুন সোনাকান্দা পশুর হাট
সামসুল ইসলাম সনেট,কেরানীগঞ্জ
Published : Saturday, 10 August, 2019 at 12:47 PM

দুয়ারে কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। দুই দিন পরই ঈদ, মুসলিম বিশ্বের সর্ববৃৎ এই উৎসব ঘিরে পৃথিবীর নানা দেশের সাথে বাংলাদেশেও  উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। গরু, মহিষ, ছাগল, বেড়া, ভিন দেশি দুম্মা, উট কিনায় ব্যাস্ত সবাই। দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলায় ছোট বড় বহু পশুর হাট থাকলেও বড় এবং অধিক সুযোগ সুবিধা পাওয়া হাটগুলোর প্রতিই দৃষ্টি সবার।

কেরানীগঞ্জ উপজেলায় এবার অস্থায়ী ৮ টি বড় হাট সহ প্রায় ২০ টি হাটে পশু কেনা বেচা হচ্ছে। তার মঝে অন্যতম ঢাকা বিসিক শিল্পনগরী সংলগ্ন নতুন সোনাকান্দা গবাদিপশুর হাট। পাঁচ দিন ব্যাপী হাটের দ্বিতীয় দিনেই দারুণ ভাবে জমে উঠেছে হাটটি। সড়ক পথের সাথে নৌপথে সমান সুযোগ থাকায় পাশের জেলা মুন্সিগঞ্জের বহু ক্রেতা বিক্রেতার সমাগম ঘটে নতুন সোনাকান্দা হাটে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় গরু কারবারি ও খামারিরা হাট কমিটির ব্যবস্থাপনায় খুশি। গরু ছাগল রাখার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা,ঝড় বৃষ্টি কবল থেকে রক্ষা পেতে পুরো হাট জুড়ে টেরপালের ব্যবস্থা, সার্বক্ষনিক পুলিশি টহল,জাল নোট সনাক্তকরণ বুথ এবং সর্ব নিন্ম হাসিলের ব্যবস্থা হাটটি কে পরিচিতি দিতে সাহায্য করেছে।

হাটে গিয়ে দেখা যায়, চাহিদার তুলনায় পর্যাপ্ত পরিমাণে দেশীয় গরু নিয়ে এসেছেন বিক্রেতারা। অপরদিকে ক্রেতাদের চাহিদাও ছিল দেশীয় গরুর প্রতি। শুধু গরু নয় পাশাপাশি মহিষ ও ছাগলের চাহিদারও কমতি ছিল না। তবে মাঝারি মূল্যে  পশু বিক্রি হওয়ায় খুশি ক্রেতারা। তবে অনেকেই বলছে চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে গরু। অন্য দিকে বিক্রেতা বলছে ভিন্ন কথা। তারা বলছে বাজারের যে আবস্থা চলছে তা অব্যাহত থাকলে আমারা আমাদের মূলধনই ফেরৎ পাবোনা।খাবারের উচ্চ মুল্যে গরুর পরতা বেশি। কিন্তু বেজারর যে অবস্থা ক্রেতার চেয়ে বিক্রেতাই দেশি।

পাশের জেলা মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান সৈয়দপুর থেকে গরু কিনতে আসা নাদির হোসেন বলেন, গত বছরের চেয়ে এ বছর চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে পশু। বাজেটের চেয়েও অনেক বেশি দাম হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা। তবুও সাধ্যমতো তিন টি গরু কিনলাম। তবে হাসিল মোটামুটি কম হওয়ায় আমরা খুশি।

মাহবুব নামের আরেক ক্রেতা বলেন, এ হাটে মায়ানমার কিংবা ভারতীয় গরু না আসায় দেশীয় গরুর কদর বেড়েছে। তাই দামটা চড়া লাগছে

তবে বেপারীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, খৈল, ভূষির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় গরু লালন-পালন করতে খরচ বেশি হয়েছে। তাই এবারের পশুর হাটে দাম চড়া।

নতুন সোনাকান্দা পশু হাটের ইজারাদার হাজী সেলিমের পক্ষে  তার ছোট ভাই শামিম সানি  দৈনিক আমার সংবাদকে জানান, গত কাল হাটে বেচাকেনার সময় বৃষ্টি হওয়ায় হাতেগোনা কয়েকটি গরু বেচা হয়েছে।সে তুলনায় আজ একটু বেশিই বিক্রি হয়েছে। আর আমরা নামে মাত্র হাসিলি নিচ্ছি, তাই আগামী দুই দিন আমরা প্রচুর গরু বিক্রির আশা করছি।
নতুন সোনাকান্দা পুলিশ ফাঁড়ির এস আই মাহমুদ দৈনিক আমার সংবাদকে বলেন, পশুর হাটে চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী রোধে পুলিশের একটি টিম দায়িত্ব পালন করছে।ক্রেতা-বিক্রেতারা যাতেভনির্ভয়ে পশু বেচাকেনা করতে পারে সে ব্যপারে আমরা সজাগ দৃষ্টি রাখছি।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/আলো

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft