ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ || ৫ আশ্বিন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ ক্যাসিনো খালেদকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার ■ ঠাকুরগাঁওয়ে বাংলাদেশি যুবককে ধরে নিয়ে হত্যা করলো বিএসএফ ■ সংসদ ভেঙে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন ■ ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিল বিএনপি ■ ৭ দিনের রিমান্ডে যুবলীগের খালেদ ■ নজরদারিতে সম্রাট, শিগগিরই গ্রেফতার! ■ সব অবৈধ ব্যবসার বিরুদ্ধে অভিযান চলবে ■ যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর ■ মার্কিন ড্রোন হামলায় আফগানিস্তানে নিহত ৩০ ■ খুনি নূর চৌধুরীর অবস্থান প্রকাশে বাধা নেই ■ ক্যাসিনোর সাথে জড়িতদের নাম বলছেন যুবলীগ নেতা খালেদ ■ নারায়ণগঞ্জে একই পরিবারের ৩ জনকে গলা কেটে হত্যা
জাতীয় পার্টির কাউন্সিল ৩০ নভেম্বরের পরিবর্তে ২১ ডিসেম্বর
সৈয়দ ইকরাম হোসেন, ঢাকা
Published : Wednesday, 11 September, 2019 at 9:54 PM, Update: 11.09.2019 9:58:21 PM

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টির জাতীয় কাউন্সিল ৩০ নভেম্বরের পরিবর্তে ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। তিনি বলেন, ব্যক্তি স্বার্থের উর্ধ্বে উঠে আমরা রাজনীতি করবো। বলেন, যারা বলেছিলেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টি ভেঙে যাবে, তাদের ধারনা মিথ্যে প্রমানিত হয়েছে। জাতীয় পার্টি অরো সুশৃংখল এবং শক্তিশালী হিসেবে বাংলাদেশের রাজনীতির মাঠে থাকবে।

আজ বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউশন, বাংলাদেশ এর সেমিনার হলে জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সাংগঠনিক সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের আরো বলেন, পল্লীবন্ধুর অভাব হঠাৎ করেই পূরণ করা সম্ভব নয়। বলেন, পল্লীবন্ধু ৩৬ বছর রাজনৈতিক জীবনের ২৭ বছরই ক্ষমতার বাইরে থেকে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নিবেদিত ছিলেন। গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রুপ দিতে পল্লীবন্ধু আমরন সংগ্রাম করেছেন। দেশের বর্তমান রাজনৈতিক শুন্যতায় জাতীয় পার্টি আরো শক্তিশালী হয়ে, সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণের কর্মসূচি দিয়ে দেশের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। জাতীয় পার্টি আগামী দিনে রাজনীতির নিয়ামক এবং চালিকা শক্তি হয়ে থাকবে।

জাতীয় ছাত্র সমাজের নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্য জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, একটি সময়ে দেশের ছাত্র সংগঠন গুলো দল বা ব্যক্তির লেজুড়বৃত্তি ও লাঠিয়াল বাহিনীতে পরিণত হয়েছিলো। আর এ কারনেই পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করেছিলেন। তিনি উপদেশ দিয়ে বলেন, ছাত্র সমাজ যেন কারো লাঠিয়ালে পরিনত না হয়। ছাত্র সমাজকে প্রতিটি অন্যায় আর অসত্যের প্রতিবাদ করে সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে থাকতে হবে। ছাত্র সমাজের প্রতি সততা ও ন্যায়ের সাথে রাজনীতি করতে আহবান জানিয়ে বলেন, রাজনীতি করতে অর্থের প্রয়োজন আছে। কিন্তু অর্থের জন্য রাজনীতি করা দূর্বৃত্তায়ন। জাতীয় পার্টির আরো সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় এসেছে, তাই জাতীয় ছাত্র সমাজকে আরো শক্তিশালী হতে হবে।

এসময় জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি বলেন, জাতীয় পার্টি এখন সকল ষড়যন্ত্র থেকে মুক্ত।  ২০২৩ সালের নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টি আরো শক্তিশালী হচ্ছে। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টির যে সব নেতাদের সন্তনরা জাতীয় ছাত্র সমাজ করছে না, সেই সব নেতারা কোন নির্বাচনেই জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন পাবেনা। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি সংসদে বিরোধী দলের অবস্থানে আছে। আমরা সরকারের সাথে এক সাথে নির্বাচন করেছি, তাই তাদের সাথে আমাদের একটা সুসম্পর্ক আছে। তাই বলে সরকার যা বলবে জাতীয় পার্টি তা করবেনা। জাতীয় পার্টি স্বচ্ছ বিরোধী দল হিসেবে বাংলাদেশে রাজনীতি করবে। ছাত্র সামজের উদ্দেশ্যে মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, এরশাদ ছিলেন একজন পরিস্কার মানুষ, তাই জাতীয় ছাত্র সমাজের সকলকে পরিস্কার মানুষ হতে হবে।

জাতীয় ছাত্র সমাজ কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মোঃ জামাল উদ্দীন এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব ফয়সাল দিদার দিপু’র উপস্থাপনায় সাংগঠনিক সভায় বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, এড. রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান- আহসান আদেলুর রহমান আদেল এমপি, যুগ্ম মহাসচিব- গোলাম মোহাম্মদ রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক- নির্মল দাশ, এড.আব্দুল হামিদ ভাষানী, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক- সৈয়দ ইফতেকার আহসান হাসান, যুগ্ম-ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক- মিজানুর রহমান মিরু।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান- মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, যুগ্ম মহাসচিব- মনিরুল ইসলাম মিলন, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য- বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইসহাক ভুইয়া, সুলতান মাহমুদ, এমএ রাজ্জাক খান, আবু জায়েদ মাখন সরকার, ইকবাল হোসেন তাপস, কেন্দ্রীয় নেতা- মুহাম্মদ মাসুদুর রহমান চৌধুরী, মোঃ ফারুক শেঠ, আসমা সোলতানা, এমএ সোবহান, মঞ্জুর মাস্টার, সমরেশ মন্ডল মানিক। জাতীয় ছাত্র সমাজ কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক- ইব্রাহীম খান জুয়েল, মোস্তাফিজুর রহমান, নকিবুল হাসান নিলয়, নাজমুল হাসান, শাহ ইমরান রিপন, আমিনুল হক মোল্লা, এরশাদুল বারী নাসিম, ফয়সাল রানা, এরশাদ সিদ্দিকী, নুর মোহাম্মদ, অর্নব চৌধুরী,জোবায়ের আহমেদ প্রমুখ ।

দেশসংবাদ/এসকে

মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft