ঢাকা, বাংলাদেশ || বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ || ২ কার্তিক ১৪২৬
শিরোনাম: ■ ক্যাসিনোর টাকা তো অনেকেই পেয়েছেন, শুধু আমি কেন ■ তুরস্কের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ পরমাণু বোমা! ■ একটু পানি চেয়েছিল মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটফট করতে থাকা আবরার ■ রিমান্ডের প্রথম দিনেই র‍্যাবের কাছে সম্রাট ■ যুবলীগের কোন দুর্নীতিবাজ যেন গণভবনে না আসে ■ টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক কারবারি নিহত ■ মদিনায় বাসে আগুন, ৩৫ ওমরাহ যাত্রী নিহত ■ সন্ত্রাসীদের আত্মসমর্পণ করতে বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ■ বড় ভাইয়ের নির্দেশে আবরারকে ডেকে এনে মারা হয় ■ কুষ্টিয়ায় কৃষক হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ চারজনের ফাঁসি ■ সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ ডেকেছে ঐক্যফ্রন্ট ■ ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
দাওয়াত পেলে বাংলাদেশে আসবেন পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী
মোঃ রাসেল আহম্মেদ, পর্তুগাল
Published : Friday, 27 September, 2019 at 11:45 PM, Update: 27.09.2019 11:59:31 PM

১৯৭১ সালে যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশের জন্য যে সময় শিল্পী জর্জ হ্যারিসন গান গেয়ে তহবিল সংগ্রহ করছিলেন, সে সময় পর্তুগালের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আন্তনিও কোস্টা বাংলাদেশের জনগনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে একটি সিডি কেসেট কিনেছিলেন। এমনকি বলছিলেন কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও লিসবন সিটি কাউন্সিলর রানা তসলিম উদ্দিন এর কাছে, গত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ লিসবনের কেপ ভার্দে (আফ্রিকা) এসোসিয়েশনের দেয়া মধ্যাহ্নভোজ অনুষ্ঠানে।

এসময় পর্তুগালের প্রধান মন্ত্রী আন্তনিও কোস্টাকে রানা তসলিম উদ্দিন বাংলাদেশ সফরের আহবান জানান। জবাবে আন্তনিও কোস্টা বলেন, "দাওয়াত পেলে অবশ্যই যাবো। আমার বাংলাদেশ ভ্রমণ করার আগ্রহ আছে"।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সজিব গ্রুপের এ জি এম (এক্সপোর্ট) জিয়াউর রহমান নিপু, পর্তুগাল মাল্টিকালচ্যারাল একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাসেল আহম্মেদ ও তরুণ প্রবাসী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তানভীর আলম জনি।

১৯৭১ এর বাংলাদেশ আর আজকের বাংলাদেশের পার্থক্য বুঝাতে গিয়ে রানা তসলিম উদ্দিন উল্লেখ করেন কিভাবে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হল বাংলাদেশ। এবং কিভাবে বাংলাদেশ আজ পৃথিবীর বুকে মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে আছে, কিভাবে ১০ লাখের বেশী রিফিউজি রোহিংগাদের আশ্রয় দিয়েছে। সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক উন্নতি সাধিত হল কিভাবে তারও বিশদ ব্যাখ্যা দিয়েছেন। কথা গুলো তিনি তন্ময় হয়ে মনযোগ দিয়ে শুনেন ও প্রশংসা করে বলেন, "পর্তুগালেও আপনাদের কমিউনিটির যথেষ্ট সুনাম রয়েছে"।

এসময় পর্তুগালে বাংলাদেশ কমিউনিটির গত ত্রিশ বছরের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস ব্যাখ্যা করেন রানা তসলিম উদ্দিন। পর্তুগালের অর্থনীতিতে বাংলাদেশিদের অবদানের কথা বলেন এবং পর্তুগালে আমাদের জনসংখ্যার খতিয়ান তুলে ধরেন। এসময় বাংলাদেশ কমিউনিটির বিভিন্ন অসুবিধার কথা উল্লেখ করেন এবং নির্মাণাধীন মসজিদ নিয়েও কথা বলেন। আন্তনিও কোস্টা তৎক্ষণাৎ লিসবনের মেয়রকে ফোন করে সর্বশেষ অবস্থা জানতে চান। তাছাড়া বাংলাদেশী পর্তুগিজ ভোটারদের সংখ্যা নিয়েও কথা হয়।

প্রধান মন্ত্রী আন্তনিও কোস্টা তাঁর প্রায় ২০ মিনিটের বক্তব্যে পর্তুগালের ইমিগ্রান্টদের নিয়ে কথা বলেন, বর্ণবাদ নিয়ে কথা বলতে যেয়ে তিনি বলেন, "সারা দুনিয়া বর্নবাদের বিরুদ্ধে কথা বলে, বিবৃতি দেয়, কিন্তু আমি কাজ করে দেখাই, আমার শাসন আমলে নিগ্রোদের পার্লামেন্টে ঠাই দিয়েছি, জিপ্সিদের পার্লামেন্টে এনেছি। শারীরিক অক্ষমদের কেবিনেটে রেখেছি। যা পর্তুগালে কখনো ছিলনা।"

সবচেয়ে বিষ্ময়কর ব্যাপার ছিল, বিভিন্ন দেশের ইমিগ্রান্টদের কথা বলতে গিয়ে তিনি প্রথমেই বাংলাদেশের নাম উচ্চারন করেন, অথচ এখানে বিশ্বের প্রায় ১২০টি দেশের মানুষ বসবাস করেন। ‍‍‍

আসন্ন ৬ অক্টোবর ২০১৯ পর্তুগালের নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী ১০/১২ জন প্রার্থী, দুই জন মিনিস্টার, সোস্যালিস্ট পার্টির উচ্চ স্তরের নেতৃবৃন্দ, পর্তুগালের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিগন ও কেপ ভার্দে এসোসিয়েশনের সদস্যগন সহ পর্তুগালের বিভিন্ন জাতীয় টিভি চ্যানেল ও পত্রিকার সাংবাদিকবৃন্দরা উক্ত মধ্যাহ্নভোজ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

রানা তসলিম উদ্দিন উল্লেখ করেন, বাংলাদেশ কমিউনিটির মুখপাত্র হয়ে, বাংলাদেশ ও এখানকার মানুষের কথা বলতে পেরে, নিজ দেশের অর্জন অন্য দেশের প্রধান মন্ত্রীর কাছে বলতে পারার জন্য আমাদের কমিউনিটির কাছে, প্রধানমন্ত্রী জনাব আন্তনিও কোস্টার কাছে, সর্বোপরি কেপ ভার্দে এসোসিয়েশনের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  লিসবন পর্তুগাল  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft