ঢাকা, বাংলাদেশ || রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ || ৫ কার্তিক ১৪২৬
শিরোনাম: ■ ভোট নিয়ে বক্তব্যর ব্যাখ্যা দিলেন মেনন ■ মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৫ (ভিডিও) ■ ভারত-পাকিস্তানে ব্যাপক পাল্টাপাল্টি হামলা, নিহত ১৬ ■ ভোলায় পুলিশ-জনতা ব্যাপক সংঘর্ষ, নিহত ৪ ■ বাংলাদেশের নির্মিত মোবাইল সারা বিশ্বে ব্যবহার হবে ■ মন্ত্রী হলে কি মেনন এ কথা বলতেন, প্রশ্ন কাদেরের ■ প্রতি টেন্ডারে ৫ পার্সেন্ট কমিশন নিতেন মেনন ■ আবারও আটকে গেল ব্রেক্সিট চুক্তি, বেকায়দায় জনসন ■ পাকিস্তানি হামলায় ২ ভারতীয় সেনাসহ নিহত ৩ ■ সম্রাট থেকে প্রতি মাসে ১০ লাখ টাকা নিতেন মেনন ■ টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত ■ কে এই কাউন্সিলর রাজীব?
গ্রাম আদালতকে সক্রিয় করে গ্রামীন ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করা হবে
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Sunday, 29 September, 2019 at 9:38 PM, Update: 29.09.2019 11:14:52 PM

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, গ্রাম আদালতকে সক্রিয়করণের মাধ্যমে জনগণের ন্যায়বিচার প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিত করা এবং আদালতে মামলার জট কমানোর জন্য বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও বিভিন্ন সময়ে গ্রাম আদালত করণের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্ব প্রদান করে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্প অল্প খরচে জনগণের কাছে দ্রুততম সময়ে বিচারিক সেবা পৌঁছে দিতে সরকারকে সহায়তা করছে। ইউনিয়ন পরিষদে প্রতিষ্ঠিত গ্রাম আদালত উভয় পক্ষের মনোনীত সদস্যদের মাধ্যমে সমঝোতার ভিত্তিতে বিরোধ নিষ্পত্তি করে থাকে। ফলে সামাজিক শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় থাকে। এজন্য সরকার সারাদেশে গ্রাম আদালতগুলোকে কার্যকর করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

মন্ত্রী জানান, জুলাই ২০১৭ হতে আগস্ট ২০১৯ পর্যন্ত দুই বছরে প্রকল্প এলাকার বিভিন্ন ইউনিয়নে ১,৩৩,৬৬৪টি মামলা নথিভুক্ত হয়েছে যার মধ্যে ১,০৬,৭০২টি মামলার রায় প্রদান করা হয়েছে এবং ১,০০,৩৩৩টি মামলার সিদ্ধান্ত (রায়) বাস্তবায়ন হয়েছে।


আজ রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে গণমাধ্যমের নেতৃস্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে ‘গ্রাম আদালত বিষয়ে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, বাংলাদেশে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর রাষ্ট্রদূত রেনসে তিরিন্ক, ইউএনডিপি বাংলাদেশে-এর আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জী এবং বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক ও স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা কাদের। মুক্ত আলোচনা পর্ব সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা।


উল্লেখ্য পল্লী এলাকার নারী, দরিদ্র ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠী যাতে তাদের প্রতি সংঘঠিত অন্যায়ের প্রতিকার স্থানীয় পর্যায়ে গ্রাম আদালতের মাধ্যমে দ্রুত ও স্বল্প ব্যয়ে পেতে পারে সে লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার স্থানীয় সরকার বিভাগের মাধ্যমে ইউএনডিপি ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর আর্থিক সহযোগিতায় বাংলাদেশের ১৪টি জেলার ৫৭টি উপজেলায় ৩৫১টি ইউনিয়নে (২০০৯-২০১৫) ‘Activation Village courts in Bangladesh’ শীর্ষক প্রকল্পের (২০০৯-২০১৫) প্রথম পর্যায়ের কার্যক্রম সমাপ্ত হয়েছে।

প্রথম পর্যায় সমাপ্তির পর উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ উদ্যোগে দেশের ২৭টি জেলার ১২৮টি উপজেলার ১০৮০টি ইউনিয়নে বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পটির (২০১৬-২০১৯) কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সম্প্রতি ৩ পার্বত্য জেলার ২৬টি উপজেলার ১২১টি ইউনিয়ন পরিষদকে এ প্রকল্পের অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। প্রকল্পের মোট বরাদ্দ: ২৮০ কোটি ৯৪ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা। যার মধ্যে প্রকল্প সাহায্য ২৪০ কোটি ৩১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা এবং জিওবি ৪০ কোটি ৬২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।

দেশসংবাদ/এফএইচ/বি


আরও সংবাদ   বিষয়:  গ্রাম আদালতকে সক্রিয়করণ   গ্রামীন ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft