ঢাকা, বাংলাদেশ || বুধবার, ২২ জানুয়ারী ২০২০ || ৯ মাঘ ১৪২৬
শিরোনাম: ■ গণজোয়ার দেখে আতিক ভড়কে গেছেন ■ বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু ■ প্রবাসীরা যেন হয়রানির শিকার না হন সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে ■ লেমিনেটেড পোস্টার ছাপানো ও প্রদর্শন বন্ধে হাইকোর্ট নির্দেশ ■ সীমান্তে ২ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা ■ সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত ৪০ ■ কেরানীগঞ্জে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪ ■ ট্রাম্পকে হত্যা করতে পারলে ৩ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার ■ সিটি নির্বাচনে সেনাবাহিনী থাকছে না ■ তাবিথের ওপর হামলা তদন্তের নির্দেশ ■ কিছু কিছু মৃত্যু সত্যিই অত্যন্ত কষ্টের ■ মুজিববর্ষে বাড়ি পাবে ৬৮ হাজার দুস্থ পরিবার
বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী
ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত
কায়সার হামিদ হান্নান, মালয়েশিয়া
Published : Sunday, 8 December, 2019 at 1:37 PM

ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

বাঙালি জাগরণের জাতি। এই জাতির মুক্তির দূত হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপিত হবে। দলমত নির্বিশেষে সবার উচিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করা।

কারণ বঙ্গবন্ধুর মধ্যে আপামর জনসাধারণের সাথে মেশার একটা অসাধারণ ক্ষমতা ছিল। তিনি মানুষকে উজ্জীবিত করতে পারতেন। এজন্যই তিনি আজ বঙ্গবন্ধু থেকে বিশ্ব বন্ধুতে পরিণত হয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শোষণহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখতেন। ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীঃ ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন’  শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাষ্ট্রদূত মসয়ূদ মান্নান এ কথা বলেন।

স্বে”ছাব্রতী নাগরিক সংগঠন প্রত্যাশা ২০২১ ফোরাম ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ শনিবার বিকাল ৪ টায় হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড এর কনফারেন্স রুম লালমাটিয়া মোহাম্মদপুর এই সেমিনারের আয়োজন করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রত্যাশা ২০২১ ফোরামের সভাপতি এস এম আজাদ হোসেন। আলোচনার শুরুতে শুভে”ছা বক্তব্য উপস্থাপন করেন হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ডের কান্ট্রি ডিরেক্টর আতাউর রহমান মিটন,  প্রত্যাশা ২০২১ ফোরামের কার্য নির্বাহী সদস্য ড. আরিফ আলম লেনিন, মহিদুল হক খান, সাংগঠনিক সচিব মাশুক শাহীসহ নাগরিক সমাজের আরো অনেকেই আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন।

আমরা জানি ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মের শত বর্ষ পূর্ণ হবে। এর ঠিক পরের বছর ২০২১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপিত হবে। তাই সরকার ২০২০-২১ সালকে মুজিব বর্ষ  হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী  বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপিত হবে ব্যাপকভাবে এবং সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে এই উদযাপনের সাথে সম্পৃক্ত করা হবে। শিশু, তরুণ, যুবক সকলের জন্য আলাদা আলাদা কর্মসূচির ব্যবস্তাহ  থাকবে এবং প্রতিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ড, গ্রামে-গঞ্জে এই আয়োজন বিস্তৃত থাকবে। ২০২০ সাল থেকে শুরু করে ২০২১ সালের ২৫ মার্চ পর্যন্ত মুজিববর্ষ  এবং ২৬ মার্চে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপিত হবে।

সুতারাং মুজিব বর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনকে ঘিরে সরকারের একটি ব্যাপক পরিকল্পনা রয়েছে এতে কোন সন্দেহ নেই।‘  মুজিব বর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের শানে-নুযুলটি কী, সেই বিষয়টির দিকে আমাদের একটু খেয়াল রাখা দরকার। কারণ বঙ্গবন্ধু ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও বৈষম্যমুক্ত একটি স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছর এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মের শতবছর পেরিয়ে আমরা তার স্বপ্নের কতটুকু কাছাকাছি পৌছাতে পেরেছি সেটি একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হতে পারে। তাই ২০২১ সালে ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে হলে সরকারের উচিত হবে ইউনিয়ন ভিত্তিক পরিকল্পনা গ্রহণ করা।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/আইশি


আরও সংবাদ   বিষয়:  ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত   বাংলাদেশের স্বপ্ন   শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত   



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. আবদুস সবুর মিঞা (অব.)
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft