ঢাকা, বাংলাদেশ || বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ || ৭ ফাল্গুন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ ২১ ফেব্রুয়ারি ঘিরে সুনির্দিষ্ট হুমকি নেই ■ চকবাজার ট্র্যাজেডির ৩ মরদেহ এখনও শনাক্ত হয়নি! ■ শাজাহান খানের ভাড়াটে শ্রমিকরা মাঠে নামলে খবর আছে ■ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ‘অধিনায়ক মাশরাফি’র শেষ ■ কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত ছাড়া কাউকে বহিষ্কার নয় ■ সুপ্রিমকোর্ট বারের ভোটের তারিখ ঘোষণা ■ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বাংলাদেশি জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ■ মাঝ আকাশে দুই বিমানের সংঘর্ষে নিহত ৪ ■ মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় এক আসামির জামিন ■ খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি রোববার ■ চীনে মৃত্যু আতঙ্ক, প্রাণ গেল আরও ১৩২ জনের ■ অভিবাসীদের ৫ বছরের ফ্যামিলি ভিসা দেবে কাতার
গুলিস্তান বান্দুরা সড়কে কমছেনা দুর্ভোগ!
সামসুল ইসলাম সনেট, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা)
Published : Friday, 17 January, 2020 at 4:39 PM

গুলিস্তান বান্দুরা সড়কে কমছেনা দুর্ভোগ!

গুলিস্তান বান্দুরা সড়কে কমছেনা দুর্ভোগ!

'উন্নয়নের মহাসড়কে  বাংলাদেশ' এই স্লোগান কে সামনে রেখে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালে সংস্কার ও প্রসস্থকরণ কাজ  শুরু হয় ঢাকা জেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ গুলিস্তান বান্দুরা আঞ্চলিক সড়কের। কেরানীগঞ্জ, নবাবগঞ্জ, দোহার,সিরাজদিখান এবং দক্ষিনাঞ্চলের ফরিদপুর জেলার লক্ষ লক্ষ মানুষের যাতায়াত এই রোডে। কিন্তু সংস্কার কাজ যেনো কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে এলাকাবাসীর জন্য। সড়কের অধিকাংশ কাজ শেষ হয়ে গেলেও বাকি থাকা রাস্তাগুলো যেনো মরণফাঁদ!

সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, রোহিতপুর ইউনিয়নের ঢাকা বিসিক শিল্পনগরী সংলগ্ন লাখিরচর নতুন মেইলগেটের  সামনের রাস্তাটিতে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্ত। একটু বৃষ্টিতে কাঁদা-জ্বল আর রুদ্রে যেনো ধূলোর রাজ্য!  আবার কোথাও  পিচঢালাই এর জন্য অপেক্ষায় থাকা রাস্তাগুলোও বৃষ্টি তে কর্দমাক্ত আর রুদ্রে ধূলিসাৎ হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। যানবাহন পড়ে প্রতিদিনই  ঘটছে কোনো না কোন দুর্ঘটনা। শাক্তা থেকে কোনাখোলা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে ধুলাবালি তে আচ্ছাদিত রাস্তায় গাড়ী গুলোকে দিনের বেলায়ও লাইট লাগিয়ে চলতে দেখা গেছে।

এই রাস্তার কোল ঘেঁষেই ঢাকা জেলার নামকরা সব স্কুল  কলেজ ও একধিক মাদরাসা  অবস্থিত হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী। সরকারি ইস্পাহানী কলেজ ও উচ্চবিদ্যালয় , সরকারি শাক্তা মডেল হাই স্কুল,রোহিতপুর উচ্চবিদ্যালয়, রোহিতপুর আইডিয়াল হাইস্কুল, নতুন সোনাকান্দা উচ্চবিদ্যালয়, লাখিরচর উচ্চবিদ্যালয় সহ সিরাজদিখান ও নবাবগঞ্জ উপজেলার বহু স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা অবস্থিত এই রাস্তার পাশে। প্রতিদিন ধূলাবালি না হয় কর্দমাক্ত রাস্তায় যাতায়াত করতে হয় ছাত্রছাত্রীদের।

রোহিতপুর আইডিয়াল স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী আফরিন তুলি জানান, আমাদের স্কুলে যেতে বিকল্প কোন রাস্তা না থাকায় এই মেইন রোড দিয়েই প্রতিদিন যাতায়াত করতে হয়। বহু দিন ধরে এই রাস্তায় কাজ চললেও এখনো শেষ হচ্ছেনা। ঠিক মতো পানিও ছিটায় না রাস্তায়। তাই ধূলাবালি সহ্য করে প্রতিদিন স্কুলে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ি। মাথাব্যথা, ঠান্ডা লেগেই থাকে। সামনে পরিক্ষা হওয়ায় সমস্যা আরো বেশি।

স্থানীয়রা ভুক্তভোগীরা জানান, আমরা রাস্তার সংস্কার চাই। রাস্তাঘাটের উন্নতি মানে আমাদের উন্নতি। কিন্তু এতো দিন ধরে চলতে থাকা রাস্তার কাজ শেষ না হওয়ায় আমরা হতাশ। ব্যবসা বানিজ্য  ও চাকরি ক্ষেত্র যেতে আমাদের অনেক অসুবিধা হচ্ছে। সরকারের কাছে আমাদের আকুতি আপনারা অনেক ভালো কাজ করছেন। আমাদের এই রাস্তাটিও দ্রুত কাজ শেষ করে আমাদের কে মুক্তি দিবে।

এ ব্যাপারে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহজাহান বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাগুলো  রোডস এন্ড হাইওয়ে এর আওতাধীন। এতে আমাদের হাত নেই। রোডস এন্ড হাইওয়ের ইঞ্জিনিয়ার কে ফোনে পাওয়া যায়নি।
 
দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এসকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  গুলিস্তান   বান্দুরা সড়ক   দুর্ভোগ   



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft