ঢাকা, বাংলাদেশ || মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ || ৬ ফাল্গুন ১৪২৬
শিরোনাম: ■ উনি ফোন করেছিলেন, চাইলে প্রমাণ দেব ■ উইঘুরদের ভয়ঙ্কর নির্যাতনের গোপন তথ্য ফাঁস! ■ হাতীবান্ধায় শিক্ষককের হাতে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণ ■ প্রধান শিক্ষক ছাড়াই চলছে ৭ হাজার ১৮ প্রাথমিক বিদ্যালয় ■ পাকিস্তানে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ১০ ■ করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮৬৮ ■ করোনার থাবায় প্রাণ হারাল উহান হাসপাতালের পরিচালকও ■ অভিনেতা তাপস পাল আর নেই ■  ছাত্রলীগকে উদ্দেশ্য করে যা বললেন মাশরাফি ■ পুলিশের যখন যেটা প্রয়োজন প্রধানমন্ত্রী সেটাই দিয়েছেন ■ বিএনপির ঘাড়ে সওয়ার হওয়া ড. কামাল বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ■ করোনাভাইরাসের প্রথম প্রতিষেধক পেল যুক্তরাষ্ট্র!
রাবি শিক্ষকের সাথে অসৌজন্য আচরণের অভিযোগ
তানভীর আহমেদ, রাবি
Published : Sunday, 26 January, 2020 at 3:57 PM

রাবি শিক্ষকের সাথে অসৌজন্য আচরণের অভিযোগ

রাবি শিক্ষকের সাথে অসৌজন্য আচরণের অভিযোগ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের সাথে অসৌজন্য আচারণের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। সহকারী প্রক্টর মো. রবিউল ইসলাম, হুমায়ুন কবীর ও প্রজন্মলীগের সভাপতি আব্দু্ল্লাহ আল মামুন এর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছেন ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সোলাইমান চৌধুরী।

আজ রবিবার সকালে ৯  টার দিকে অবৈধভাবে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার অভিযোগ তুলে মো সোলাইমান চৌধুরী  প্লেকার্ড নিয়ে উপাচার্য ভাবনের সামনে অবস্থান করেন। যার পরিপ্রক্ষিতে এই ঘটনা ঘটে।

এই বিষয়ে সোলাইমান চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন,সকালে ভিসি বাসভবনের সামনে অবস্থান করলে হুমায়ুন সাহেব আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। আমকে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেন। হুমায়ুন কবির এর সাথে তখন সহকারী প্রক্টর  রবিউল ইসলাম ও প্রজন্মলীগের সভাপতি আব্দুলাহ আল মামুন উপস্থিত ছিলেন। আব্দুলাহ মামুন একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী হিসাবে আমার সাথে খারাপ আচরণ করার অধিকার রাখে না। এছাড়াও আমার হাতে  প্লেকার্ড ছিনিয়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলে দেয়।

তিনি আরো বলেন, রাবিউল ইসলাম এর স্ত্রীকে অবৈধভাবে নিয়োগ পাওয়ানোর জন্যই তিনি এ কাজ করেছেন। আমাকে মূলত এ কারণেই ভিসি বাসভবনের সামনে থেকে চলে যেতে বলে।

মো.রবিউল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি কারো সাথে অসৌজন্য  আচারণ করিনি। আমি সহকারী প্রক্টর হিসাবে  প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করতেই সেখানে গিয়েছিলাম। যেহুতু সেই সময় ভিসি বাসভবনে শিক্ষক নিয়োগ এর ভাইভা বোর্ড চলছে তাই আমি সোলাইমান স্যারকে অনুরোধ করেছিলাম যেন সে এই জায়গায় না দাঁড়িয়ে অন্য কোন জায়গায় গিয়ে দাঁড়ায়।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে  হুমায়ূন কবীর বাংলার জনপদকে   বলেন, একজন শিক্ষককে অবশ্যই  বিশ্ববিদ্যালয় অডিনেন্স  মেনে চলতে হবে। উপাচার্য বাসভবনের মত স্পর্শ কাতর জায়গায় সে প্রক্টরিয়াল বডির অনুমতি ছাড়া দাঁড়িয়ে থাকতে পারে না। আমি তার সাথে কোন খারাপ আচারণ করিনি। শুধুমাত্র সেখান থেকে চলে যেতে বলছি।

এ বিষয়ে আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,'আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছে তার কাছে ভালোভাবে শুনুন আমি কার সাথে খারপ আচারণ করেছি। আমি কারো সাথে খারাপ আচরণ করিনি। তিনি আমার শিক্ষক। একজন শিক্ষকের সাথে খারাপ আচরণ করার প্রশ্নই উঠে না। '

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এনকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়   শিক্ষক   অসৌজন্য আচারণ   অভিযোগ  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft