ঢাকা, বাংলাদেশ || সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০ || ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা একই রোল নিয়ে পরের শ্রেণিতে উঠবে ■ ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৮ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৪১৯ ■ বিভাগীয় শহরে ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা, এমসিকিউ ৪০ লিখিত ৪০ ■ কাল নতুন মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা ■ শহীদ বুদ্ধিজীবীদের তালিকা করতে কমিটি গঠন ■ করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের হুঁশিয়ারি ■ শেয়ারবাজারে বড় দরপতন ■ হার মেনে নাও ■ পুঁজিবাজারে বড় পতন ■ মুখে গামছা বেঁধে দুই জমজ বোনকে ধর্ষণ ■ বিভিন্ন ব্যাংকে গোল্ডেন মনিরের লেনদেন ৯৩০ কোটি টাকা ■ অপরাধ জগতের সম্রাট গোল্ডেন মনির
কুমারখালীর পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মামলা
ইসমাইল হোসেন বাবু, কুষ্টিয়া
Published : Wednesday, 6 May, 2020 at 3:34 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

কুমারখালীর পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মামলা

কুমারখালীর পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মামলা

সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে এবার কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে স্ব-প্রণোদিত মামলা করেছেন আদালত। প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ক্ষতিগ্রস্থ গরীব, অসহায় ও দুস্থ হতদরিদ্র ব্যক্তিদের মাঝে মানবিক সহায়তা হিসাবে সরাকরি ত্রাণ (প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ৩ কেজি আলু ও ১টি সাবান) বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ সংক্রান্ত গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ আদালতের দৃষ্টিগোচর হওয়ায় গতকাল ৫ মে মঙ্গলবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতের (কুমারখালী) বিচারক সেলিনা খাতুন এ মামলা 

দায়ের করেন। মিস কেস নং- ০২/২০২০, ফৌজদারী কার্যবিধির ধারা- ১৯০ (১) (সি)। আগামী ২৩/০৬/২০২০ তারিখের মধ্যে এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য অফিসার ইনচার্জ কুমারখালী থানাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলার আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে, দৈনিক আজকের আলো পত্রিকায় এবার ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ কুমারখালী পৌরসভার মেয়র সহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের দৃষ্টিগোচর হয়। 

প্রতিবেদন হতে জানাযায় যে, কুমারখালী পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে বরাদ্দকৃত ১৩৫০ প্যাকেট ত্রাণ সংশ্লিষ্ট মেয়রের নিকট হতে কাউন্সিলরগণ অসহায় ও দুস্থদের মাঝে বিতরণের জন্য গ্রহণের পর বিতরণ করেন। কিন্তু উক্ত ত্রাণ বিতরণের পর পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখার গোপন অনুসন্ধানে জানাযায় যে, উল্লেখিত ওয়ার্ডগুলোতে তালিকায় নাম থাকা গরীব অসহায় ও দুস্থ হতদরিদ্র ব্যক্তিরা ত্রাণ সামগ্রী পাননি এবং মাষ্টাররোলে টিপসহি ও স্বাক্ষর দেননি। তবুও তাদের নামে পাশে স্বাক্ষর এবং টিপসহি দেখানো হয়েছে। ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম ধরা পড়া ওয়ার্ডগুলো হলো- ১, ২, ৪, ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড।

ইহা একটি ফৌজদারি অপরাধ। বিষয়টি তদন্তপূর্বক আগামী ২৩/০৬/২০২০ তারিখের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য অফিসার ইনচার্জ কুমারখালী থানাকে নির্দেশ দেওয়া হলো। আগামী ২৪/০৬/২০২০ ইং তারিখ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পরবর্তী দিন ধার্য্য করেছেন আদালত। 

উল্লেখ্য, কুমারখালী পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭টি ওয়ার্ডের (১, ২, ৪, ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড) ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম ধরা পড়েছে কুষ্টিয়া পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ের বিশেষ শাখার গোপন অনুসন্ধানে। সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম সংক্রান্ত পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখার প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা ত্রাণ ও পুর্ণবাসন কর্মকর্তা (চ:দা:) আবদুর রহমান গত ২৫ এপ্রিল কুমারখালী পৌরসভায় সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে চিঠি দেন। উক্ত চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, উল্লেখিত ওয়ার্ডগুলোতে তালিকায় নাম থাকা গরীব, অসহায় ও দুস্থ হতদরিদ্র ব্যক্তিরা ত্রাণ সামগ্রী পান নাই এবং মাষ্টাররোলে টিপসহি বা স্বাক্ষর দেন নাই। অথচ মাষ্টাররোলে তাদের প্রত্যেকের নামের পাশে টিপসহি ও স্বাক্ষর দেখানো হয়েছে। সংযুক্ত তালিকার দুস্থ ও অসহায় মানুষের নামে বরাদ্দকৃত সরকারি ত্রাণ সামগ্রী বিতরণে ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ পৌরসভার মেয়রের  যোগসাজশে অনিয়ম করেছেন।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট লুৎফুন নাহার পৌরসভা কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন বলে জানাগেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, সরকারি ত্রাণ বিতরণের মাষ্টাররোল ঘরে বসে তৈরী করা হয়েছে। মাষ্টাররোলে সুবিধাভোগীদের শুধু নাম এবং মোবাইল নম্বর দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও আর কোন তথ্য (অভিভাবকের নাম ও গ্রামের নাম) নেই। যারা ত্রাণ সামগ্রী পেয়েছেন এবং যারা পাননি, তাদের প্রত্যেকের টিপসহি ও স্বাক্ষর ঘরে বসেই  দেওয়া হয়েছে। বিশ্বস্থ একটি সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, পুলিশের বিশেষ শাখার গোপন অনুসন্ধানকালে যারা ত্রাণ পাননি বলে জানিয়েছেন, এখন তারা রয়েছেন আতঙ্কে।

অন্যদিকে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কাউন্সিলদের ভাষ্যমতে, তারা (কাউন্সিলর) সুবিধাভোগীদের নাম কেউ ৯১টি কেউ ৯৮টি এবং কেউ তার চেয়েও কিছু বেশি নাম দিয়েছেন। আর অবশিষ্ট নাম দিয়েছেন মেয়র নিজেই। তবুও তাদেরকে (কাউন্সিলর) মাষ্টাররোলে স্বাক্ষর করে দিতে হয়েছে।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/আইশি


আরও সংবাদ   বিষয়:  কুমারখালী   পৌরসভা   মেয়র   কাউন্সিলর   মামলা  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৮ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৪১৯
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up