ঢাকা, বাংলাদেশ || বুধবার, ৫ আগস্ট ২০২০ || ২১ শ্রাবণ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ ৩৩ জেলার ৫৫ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত ■ সারাদেশে বৃষ্টির সম্ভাবনা ■ হামলার ফলেই বৈরুতে বিস্ফোরণ ■ করোনা টেস্ট জালিয়াতির মূলহোতা সাবরিনা-আরিফ ■ লেবাননে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নৌবাহিনীর ২১ সদস্য আহত ■ ওসিসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে সিনহার বোনের মামলা ■ বিস্ফোরণের ঘটনায় লেবাননে জরুরি অবস্থা জারি হচ্ছে ■ দেশে ৭০ চিকিৎসকের মৃত্যু, আক্রান্ত ৭২৪৯ স্বাস্থ্যকর্মী ■ বিশ্বে করোনায় মৃত ৭ লাখ ■ লেবাননে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত ৭৮, আহত ৪০০০ ■ সাহেদকে কাল আদালতে তোলা হচ্ছে ■ বন্যার পানিতে ডুবে সারাদেশে মৃত্যু ১৭
তিস্তার পানিতে নিঃস্ব হাজার পরিবার
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Monday, 13 July, 2020 at 11:52 PM, Update: 14.07.2020 10:45:36 AM
Zoom In Zoom Out Original Text

তিস্তা নদীর পানি

তিস্তা নদীর পানি

তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারেজ এলাকায় রেড অ্যালার্ট জারি হওয়ার পর অবশেষে পানি নিয়ন্ত্রণে এসেছে। পানি নিয়ন্ত্রণে এলেও ঘরে ফিরতে পারছে না তিস্তা তীরবর্তী মানুষরা। জেলার ৫টি উপজেলায় পানি কমে যাওয়ার কারণে তীব্র ভাঙনে ঘরবাড়িসহ ফসলি খেত ইতিমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

সোমবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজে পানি প্রবাহ রেকর্ড করা হয় ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটার। যা স্বাভাবিকের (৫২ দশমিক ৬০ সে.মি.) চেয়ে ০০ সেন্টিমিটার। অর্থাৎ বিপৎসীমার ৫৩ সেন্টিমিটার থেকে কমিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।
তিস্তা ব্যারেজে

স্থানীয়রা জানান, রোববার (১২ জুলাই) রাত থেকে তিস্তা নদীর পানি প্রবাহ হঠাৎ বাড়তে থাকে। পরদিন সকালে ডালিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার ৫৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয় তিস্তার পানি প্রবাহ। ফলে তিস্তার চরাঞ্চল ও বামতীরের নিম্নাঞ্চল বন্যায় প্লাবিত হয়ে প্রায় ৩০ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়ে। ডুবে যায় কৃষকের ফসল। ভেসে যায় পুকুরের মাছ। দিনভর বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও সোমবার দুপুর থেকে কমতে শুরু করে।

তিস্তার পানি প্রবাহ বিপৎসীমার নিচে নেমে আসায় বন্যা পরিস্থিতিও অনেকটাই উন্নতি ঘটেছে। কমতে শুরু করেছে বন্যার পানি। এ বন্যায় জেলার ৫টি উপজেলার প্রায় ৩০ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছিল। তবে তিস্তার দুই তীরে ভাঙনে শত শত হেক্টর জমির বাদাম, ভুট্টা ও সবজি খেত নদীতে চলে যাচ্ছে। তাছাড়াও দহগ্রাম-আঙ্গরপোতার সরকারপাড়া নামক এলাকায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় নদী ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে কয়েক হাজার পরিবার। তিস্তা ব্যারাজের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৫৩ সেন্টিমিটার থেকে কমিয়ে এখন বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতি ঘটেছে।

দেশসংবাদ/বার্তা/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  নিয়ন্ত্রণ   তিস্তা নদীর পানি   তীব্র ভাঙন  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
দেশে ৭০ চিকিৎসকের মৃত্যু, আক্রান্ত ৭২৪৯ স্বাস্থ্যকর্মী
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
ফাতেমা হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up