ঢাকা, বাংলাদেশ || শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ || ১১ আশ্বিন ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ স্কুল ছাত্রী নীলার হত্যাকারী মিজানুর গ্রেফতার ■ নৌকাডুবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ও তার ভাইয়ের খোঁজ মেলেনি ■ বিএনপিকে ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করতে হবে ■ ১ অক্টোবর থেকে সিঙ্গাপুর রুটে ফ্লাইট চালু ■ রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশ-সৌদির মধ্যে অস্বস্তি ■ ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি, বাংলাদেশিসহ অনেক অভিবাসী হতাহত ■ স্কুলছাত্রী নীলা হত্যায় রিমান্ডে মিজানের বাবা-মা ■ হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংস করছে চীন! ■ আমরা চাই সবাই আগের মতো কাজ করুক ■ প্রকাশ্য জনমতে বাইডেন, উদ্দীপনায় ট্রাম্প এগিয়ে ■ বিএনপি-জামায়াত জনগণের পাশে দাড়াচ্ছে না ■ বাইডেনকে ৫শ’ নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের সমর্থন
ভোলায় অতিরিক্ত জোয়ারে পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ
কামরুজ্জামান শাহীন, ভোলা
Published : Friday, 21 August, 2020 at 7:55 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

ভোলায় অতিরিক্ত জোয়ারে পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ

ভোলায় অতিরিক্ত জোয়ারে পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ

ভোলায় মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে অতিরিক্ত জোয়ারের পানির চাপে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধসহ কাঁচা ঘরবাড়ী, পুকুরের মাছ, রাস্তাঘাট ও আশ্রয়ন ও গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পের মাটিসহ বিভিন্ন স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এতে প্লাবিত হয়েছে ভোলা সদর, বোরহানউদ্দিন ও দৌলতখান, তজুমদ্দিন, মনপুরা ও চরফ্যাশন উপজেলার অন্তত ৫০টি  গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ।

গত তিন দিন ধরে পানিবন্দি হয়ে দূর্বিষহ দিন কাটাচ্ছেন এসব বানভাসি ও নিম্নাঞ্চলের মানুষ। পানিতে ঘর, ফসলি জমি, মাছের ঘের ও আসবাপপত্র হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছেন তারা। অনেকেই আশ্রয় নিয়েছেন উঁচু স্থানে। চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন তারা।
ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, শুক্রবার (২১ আগস্ট) মেঘনার পানি বিপদসীমার ১০০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) ছিল ১১৪ সেন্টিমিটার। এতে আরেক দফায় তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকা।

এলাকাবাসী জানিয়েছে, গত কয়েকদিন থেকেই ঝুঁকির মুখে ছিল ভোলার ইলিশা ইউনিয়নের মুরাদসফিউল্লা গ্রামের সাজিকান্দি পয়েন্টের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। মেঘনার পানি বিপদসীমার ১১৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার দুপুরে এ পয়েন্ট দিয়ে ভেঙ্গে যায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধটি। এতে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে তলিয়ে যায় কয়েকটি গ্রামের মানুষের ঘরবাড়ি।

বর্তমানে পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে ইলিশা ইউনিয়নের তিনটি গ্রামসহ জেলার উপকূলবর্তী ৫০টি গ্রামের মানুষ। জোয়ারের পানিতে ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় গত তিন দিন ধরে অনেকের ঘরে রান্নার চুলা জ্বলছে না। অনেকেই তিনবেলা ঠিকমতো খেতে পাচ্ছেন না। দূর্গত এলাকায় দেখা দিয়েছে খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকট। ঘর ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছেন উঁচু স্থানে। দ্রুত বাঁধ মেরামতের দাবি বানভাসি এসব মানুষের।

পানিবন্দি এলাকার আসমা বেগম বলেন, পানির মধ্যে দিন কাটাচ্ছি, কেউ আমাদের খোঁজ নেয় না। একই কথা জানালেন আঞ্জরা ও কামাল হোসেন।

গৃহবধূ ফয়জুন বিবি বলেন, পরিবারের ১১ জন নিয়ে চরম কষ্টে দিন কাটাচ্ছি। পানিতে ঘর তলিয়ে যাওয়ায় রান্না হয়নি। ঘরের অনেক জিনিসপত্র ভেসে গেছে।

পূর্ব ইলিশা যুব ফাইন্ডেশনের সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, জোয়ারের পানিতে এখানকার ১২০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তাদের অনেকে এখন দূর্ভোগের মধ্যে আছেন। কেউ কেউ আবার খোলা আকাশের নিচে।

জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণ ও উজানের পানির চাপ বেড়ে যাওয়ায় এমন জোয়ার হচ্ছে বলে মনে করছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হাসানুজ্জামান।

তিনি বলেন, জোয়ারের পানির চাপে চার উপজেলার ৪/৫ কিলোমিটার বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জোয়ার নেমে গেলে ভাঙ্গা বাঁধ মেরামতের কাজ শুরু হবে। বাঁধ সংস্কার করা হলে তখন আর মানুষের দূর্ভোগ থাকবে না। এদিকে টেকসই বাঁধ মেরামতের মধ্য দিয়ে বানভাসি মানুষদের দূর্ভোগ লাগবের দাবি এলাকাবাসীর।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এফএইচ/mmh


আরও সংবাদ   বিষয়:  ভোলা   জোয়ার   পানিবন্দি  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ১৩৮৩, মৃত্যু ২১
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up