ঢাকা, বাংলাদেশ || শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ || ১১ আশ্বিন ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ স্কুল ছাত্রী নীলার হত্যাকারী মিজানুর গ্রেফতার ■ নৌকাডুবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ও তার ভাইয়ের খোঁজ মেলেনি ■ বিএনপিকে ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করতে হবে ■ ১ অক্টোবর থেকে সিঙ্গাপুর রুটে ফ্লাইট চালু ■ রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশ-সৌদির মধ্যে অস্বস্তি ■ ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি, বাংলাদেশিসহ অনেক অভিবাসী হতাহত ■ স্কুলছাত্রী নীলা হত্যায় রিমান্ডে মিজানের বাবা-মা ■ হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংস করছে চীন! ■ আমরা চাই সবাই আগের মতো কাজ করুক ■ প্রকাশ্য জনমতে বাইডেন, উদ্দীপনায় ট্রাম্প এগিয়ে ■ বিএনপি-জামায়াত জনগণের পাশে দাড়াচ্ছে না ■ বাইডেনকে ৫শ’ নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের সমর্থন
পুলিশ কর্মকর্তা মিজানুলকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ
দেশসংবাদ, ঢাকা
Published : Wednesday, 9 September, 2020 at 12:11 AM
Zoom In Zoom Out Original Text

হাইকোর্ট

হাইকোর্ট

ময়মনসিংহের গৌরীপুর থানার কনস্টেবল হালিমা খাতুন অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর পর তার বাবার করা আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও ধর্ষণের অভিযোগের মামলায় এসআই মিজানুল ইসলামের খালাসের বিরুদ্ধে আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে, এসআই মিজানুলকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সঙ্গে সঙ্গে মামলার নথিও তলব করেছেন আদালত। ৮ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ আপিল আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী চঞ্চল কুমার বিশ্বাস। আইনজীবী চঞ্চল কুমার বিশ্বাস সাংবাদিকদের জানান, ২০১৭ সালের ২ এপ্রিল বিকেল ৩টার দিকে গৌরীপুর থানার ব্যারাকে নিজ কক্ষে দরজা বন্ধ করে গায়ে কোরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন কনস্টেবল হালিমা খাতুন। সহকর্মীরা তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পাঠায়, সেখান থেকে ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় তার বাবা হেলাল উদ্দিন আকন্দ একই থানার এসআই মিজানুল ইসলামের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। এজাহারে বলা হয়, মিজানুল ইসলাম আমার মেয়েকে ধর্ষণ করার কারণে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

এদিকে ওই বছরের ২৫ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলন করেন হেলাল উদ্দিন আকন্দ। সেখানে তার মেয়ের ডায়েরিতে থাকা কিছু লেখা সাংবাদিকদের দেখান। ওই লেখায় তার মৃত্যুর জন্য মিজানুল ইসলাম দায়ী উল্লেখ করে লেখা ছিল বলে তার বাবা উল্লেখ করেন।

এরপর বিচার শেষে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ এর ৯ (১) ও ৯ ক ধারায় অভিযোগ প্রসিকিউশন পক্ষ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হওয়ায় চলতি বছরের ৯ মার্চ ময়মনসিংহের নারী ও শিশু নির‌্যাতন দমন আদালত মিজানুল ইসলামকে খালাস দেন।

এর বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করেন হেলাল উদ্দিন আকন্দ। এ আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করে এসআই মিজানুল ইসলামকে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দিয়েছেন এবং মামলার নথি তলব করেছেন বলে জানান আইনজীবী চঞ্চল কুমার বিশ্বাস।

দেশসংবাদ/জেএন/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  আত্মহত্যা   আত্মসমর্পণ   ময়মনসিংহ   ধর্ষণ   হাইকোর্ট  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ১৩৮৩, মৃত্যু ২১
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up