ঢাকা, বাংলাদেশ || রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০ || ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ ১৩ হাসপাতালে বসছে অক্সিজেন প্লান্ট ■ পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী যারা ■ প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া, যুবদল-যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে জখম ■ ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, আক্রান্ত ১৯০৮ ■ মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৪৭ ■ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে বাস, নিহত ৩ ■ সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশির নামে ৮ হাজার কোটি টাকা! ■ বিজ্ঞানী হত্যার চরম প্রতিশোধ নেয়ার ঘোষণা ■ ভাস্কর্য তৈরি হলে টেনে হিঁচড়ে ফেলে দেয়া হবে ■ ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন পরিবহন শুরু ■ গুপ্তহত্যার শিকার কে এই মোহসেন ফাখরিযাদে? ■ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ কোটি ১৯ লাখ ছাড়াল
আজারবাইজানের দখলে আরও নতুন এলাকা
আর্মেনিয়ার আরও ৫১ যোদ্ধা নিহত
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Saturday, 3 October, 2020 at 11:32 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

আর্মেনিয়ার আরও ৫১ যোদ্ধা নিহত

আর্মেনিয়ার আরও ৫১ যোদ্ধা নিহত

বির্তর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে সপ্তম দিনের মতো আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে লড়াই চলছে। স্বায়ত্তশাসিত নাগোরনো-কারাবাখে শুক্রবার রাতভর সংঘর্ষ হয়েছে দুই পক্ষের মধ্যে। এতে আরও ৫১ সেনা নিহত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে আর্মেনিয় নৃগোষ্ঠী শাসিত আজারবাইজানের বিচ্ছিন্ন অঞ্চলটির কর্তৃপক্ষ।

রয়টার্স জানাচ্ছে, আরও অর্ধশতসহ অঞ্চলটিতে সাম্প্রতিককালের সবচেয়ে ভয়াবহ এই লড়াইয়ে এক সপ্তাহে আড়াই শতাধিক মানুষ প্রাণ হারালো। তবে আজারবাইজানের পক্ষ থেকে তাদের সেনা হতাহতের কোনো তথ্য দেয়া হয়নি। অবশ্য আর্মেনিয় গোলার আঘাতে ১৯ জন সাধারণ মানুষের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে বাকু।

আজারবাইজান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় একটি ড্রোন ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করে জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে আর্মেনিয় সামরিক হার্ডওয়্যার স্থাপনা লক্ষ্য করে তারা এ বিষ্ফোরণ ঘটায়। এদিকে একই সঙ্গে আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও একই রাতের বেশ কিছু বিষ্ফোরণের ঘটনার ভিডিও প্রকাশ করেছে।

আর্মেনিয়া সমর্থিত নাগোরনো-কারাবাখ কর্তৃপক্ষ অবশ্য দাবি করেছে, শুক্রবার তাদের প্রধান শহর স্টেপ্যানাকার্ট লক্ষ্য করে আজেরি বাহিনী ফের রকেট হামলা চালায়। শুরুর দিকে দুই পক্ষ একে অপরকে লক্ষ্য করে ট্যাংক ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করলে আন্তর্জাতিকভাবে বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে।

৯০ এর দশকের পর দুই বিরোধী পক্ষের এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা। এটি ক্রমেই বিস্তৃতি হয়ে অঞ্চলটিতে সর্বাত্মক যুদ্ধ পরিস্থিতির ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। আর্মেনিয়ার সামরিক মিত্র রাশিয়া এবং আজারবাইজানের ঐতিহ্যগত মিত্র তুরস্কের এ যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে পাড়ে, এমন আশঙ্কা ক্রমেই ঘনীভূত হচ্ছে।

অবশ্য শুক্রবার আর্মেনিয়া জানিয়েছিল, সংঘাত নিরসনে আজারবাইজানের সঙ্গে একটি যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছাতে আন্তর্জাতিক মধ্যস্থতাকারীদের (ফ্রান্স, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র) সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তত রয়েছে ইয়েরেভান। কিন্তু আর্মেনিয়ার এমন ঘোষণার পর ওইদিন রাতেই ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হওয়ায় সেই সম্ভাবনা ক্ষীণ হচ্ছে এখন।

ফ্রান্স একটি শান্তি আলোচনা ফের শুরুর উদ্যোগ নিলেও শনিবার পর্যন্ত তা সফল হওয়ার কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি। আজারবাইজান থেকে বিশ্ববাজারে তেল ও গ্যাস সরবরাহকারী পাইপলাইনের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। দক্ষিণ ককেশাস অঞ্চলে অস্থিরতা ছড়িয়ে পড়লে ওই সরবরাহ বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত (বর্তমান রাশিয়া) এই দেশ দুটির সামরিক বাহিনীর মধ্যে শুরু হওয়া এবারের যুদ্ধ আগের সংঘাতগুলোর তুলনায় ভিন্ন। চলমান সংঘর্ষের মাত্রা, ধরণ এবং আন্তর্জাতিক বিশ্বের প্রতিক্রিয়া— এসব কিছুই ওই অঞ্চলের সাম্প্রতিককালের সব উত্তেজনাকে ছাড়িয়ে গেছে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর সকালে হঠাৎ করে শুরু হওয়া এই যুদ্ধে বড়ো বড়ো কামান, ট্যাঙ্ক, ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে। যে জায়গাটির দখল নিয়ে দুটো দেশের মধ্যে যুদ্ধ চলছে, নব্বইয়ের দশকে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার পর সেই নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল আর্মেনিয়ার সেনাবাহিনী দখল করে নিয়েছিল।

আন্তর্জাতিকভাবে অঞ্চলটি আজারবাইজানের হলেও এটির কর্তৃত্ব রয়েছে জাতিগত আর্মেনীয়দের হাতে। উভয় দেশই অঞ্চলটিকে নিজেদের অংশ বলে দাবি করে। সাম্প্রতিক লড়াই শুরুর নির্দিষ্ট কারণ জানা না গেলেও ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে, আজেরি বাহিনী অঞ্চলটি পুনর্দখল করতে গেলে সবশেষ এই যুদ্ধের সূত্রপাত।

আর্মেনিয়া ১৯৯২-৯৪ সালে যখন এই নাগোরনো-কারাবাখ দখল করে নেয় তখন সেখান থেকে প্রায় দশ লাখ আজেরি উদ্বাস্তু হয়ে পড়েছিল। এরপর থেকে এই অঞ্চলকে কেন্দ্র করে দেশ দুটির মধ্যে গত কয়েক দশকে বারবার কূটনৈতিক অচলাবস্থা এবং সংঘাতের সৃষ্টি হয়, হুমকি দেয়া হয় একে অপরকে আক্রমণের।

দেশসংবাদ/জেআর/এফএইচ/এইচএম


আরও সংবাদ   বিষয়:  আজারবাইজান   আর্মেনিয়া  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, আক্রান্ত ১৯০৮
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up