ঢাকা, বাংলাদেশ || মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ || ৫ কার্তিক ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ বিএনপি'র মতো ব্যর্থ বিরোধীদল আর দেখেনি ■  ময়লার বালতি থেকে লাশ উদ্ধার ■ বাজারে আলু বিক্রি বন্ধ ■ ফের তীব্র গতিতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ■ ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকা ■ সম্রাটের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন ৩০ নভেম্বর ■ এপ্রিল থেকে দেশে ফিরেছেন ২ লক্ষাধিক প্রবাসী ■ নৌযান ধর্মঘটে অচল চট্টগ্রাম বন্দর ■ রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে ইরানের অস্ত্র চুক্তি ■ বন্ধুর স্ত্রীকে দফায় দফায় ধর্ষণ, ভিডিও পর্নোসাইটে ■ পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা ■ ৯৪ ইলিশ ধরা ট্রলার ডুবিয়ে দিল নৌ-পুলিশ
দিশেহারা ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা
রংপুরে পানির নিচে ১৭ হাজার হেক্টর ফসলি জমি
আফরোজা বেগম, রংপুর
Published : Monday, 5 October, 2020 at 11:08 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

রংপুরে পানির নিচে ১৭ হাজার হেক্টর ফসলি জমি

রংপুরে পানির নিচে ১৭ হাজার হেক্টর ফসলি জমি

রংপুরে আট উপজেলায় ১ লাখ ৬৫ হাজার হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় দেড় হাজার হেক্টরসহ জেলার আট উপজেলাতে ১৭ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ক্ষেত পানিতে তলিয়ে গেছে। আর ৬ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে শাক-সবজি রয়েছে। এর মধ্যে ১ চার”শ হেক্টর জমির শাক-সবজি বন্যায়  ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বন্যায় অসংখ্য কৃষকের স্বপ্ন এখন বন্যার পানিতে হাবুডুবু খাচ্ছে। এত করে  বন্যায় পানিতে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা  দিশেহারা হয়ে পরেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, তিস্তা ও ঘাঘট নদী নিকটবর্তী হলো পীরগাছা উপজেলার কান্দি ইউনিয়ন এছাড়াও সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চলগুলেতে কোথাও হাঁটু, আবার কোথাও কোমর পানিতে ডুবে রয়েছে। গত শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর রাত থেকে শুরু কয় ভয়াভয় বন্যা। এরই ধারাবাহিগতায় থেকে আজ পর্যন্ত বন্যা হয়ে চলছে। তবে রংপুরে এই বন্যা ১৯৮৮ সালের বন্যা পরিস্থিতিকেও হার মানিয়েছে।

অন্যদিকে গ্রাম গঞ্জের নিচু রাস্তাঘাট এখনো পানির নিচে রয়েছে। কোথাও কোথাও মানুষ নিজ বাড়ি ঘরে এখনো পানিবন্দি রয়েছে। এতে আমনসহ রবিশস্য শত শত জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। ভেসে গেছে ছোট-বড় পুকুরসহ অসংখ্য মৎস্য খামারের মাছ।

রংপুর সদর উপজেলার সাজু মিয়া জানান, এক সপ্তাহের বেশি রোপা আমন খেত পানিতে ডুবে আছে। বাড়ির পিছনের খোলা জায়গাতে শাক-সবজির আবাদ। এতে নষ্ট হয়েছে শাখ ও সবজি। নদীকুলী এলাকার মানুষের পানির উজানের ঢলে ঘাঘট নদীটি ফুলে-ফেঁপে উঠেছে। পাড় উপচে ফসলের মাঠে ও লোকালয়ে পানি ঢুকে পড়ছে।

রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকার ৩১নং ওয়ার্ডের হোসেননগর গ্রামের কৃষক মিয়া মোহাম্মদ সোহেল ও রশীদ হারুন জানান, গত শনিবার রাতের ভারি বর্ষণ আর সৃষ্টি জলাবদ্ধতায় সেখানকার বেশির ভাগ এলাকার রাস্তাঘাট এখনো পানিতে থৈ থৈ করছে। ফসলি জমিতে কোমর পানি। এতে করে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রোপা আমন চাষিরা।

এদিকে কৃষি বিভাগ বলছে, আমনের জমি থেকে দ্রুত পানি সরে গেলে কৃষক ক্ষতির মুখ থেকে অনেকটা রেহাই পাবে। অনেক এলাকা থেকে পানি দ্রুত নেমে যাচ্ছে। চলতি সপ্তাহের মধ্যে পানি সরে গেলে ফসলের খুব একটা ক্ষতি হবে না।

রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক ড. মো. সরওয়ারুল হক জানান, এ বছর রংপুর জেলায় ১ লাখ ৬৫ হাজার হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে রংপুর সিটিতে দেড় হাজার হেক্টরসহ জেলার আট উপজেলায় প্রায় ১৭ হাজার হেক্টর আমন ক্ষেত পানিতে তলিয়ে গেছে। আর ৬ হাজার ২০০ হেক্টর শাক-সবজির মধ্যে ১ চার’শ হেক্টর জমির শাক-সবজি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একারনে বাজারে শাখ সবজির দামও অনেক বেরে গেছে।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এফএইচ/এইচএন


আরও সংবাদ   বিষয়:  রংপুর  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
ফের তীব্র গতিতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up