ঢাকা, বাংলাদেশ || মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০ || ১২ কার্তিক ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ ইরফানকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিতে চায় পুলিশ, বুধবার শুনানি ■ ৩ দিনের রিমান্ডে ইরফান সেলিমের সহকারী দিপু ■ দেশে করোনায় আরো মৃত্যু ২০, আক্রান্ত ১৩৩৫ ■ ইরফানকে শিগগিরই বরখাস্ত করা হবে ■ ৬ জনের ১০, ৪ জনের ৫ ও ১ জনের তিন বছরের কারাদণ্ড ■ মস্তিষ্কে করোনার জীবাণু থাকতে পারে ১০ বছর ■ এই দেশে আর মাস্তানি চলবে না ■ ইরফান সেলিমের রুমে পাওয়া গেলো ড্রোন ■ অপরাধীদের আইনের মুখোমুখি হতেই হবে ■ হাজি সেলিমের ছেলে ইরফানের এক বছরের কারাদণ্ড ■ ইরফানের খাটের জাজিমের নিচে অস্ত্র, ঘরে ছিলো মদ-বিয়ার ■ ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৪৩৬
এসআই আকবর যেন পালাতে না পারে
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Saturday, 17 October, 2020 at 2:30 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

এসআই আকবর যেন পালাতে না পারে

এসআই আকবর যেন পালাতে না পারে

সিলেটের বন্দরবাজার থানা পুলিশের নির্যাতনে রায়হান উদ্দিন হত্যায় অভিযুক্ত এসআই আকবর যেন কোনোভাবেই দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালাতে না পারেন সেজন্য সীমান্তে বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। শনিবার (১৭ অক্টোবর) জয়পুরহাট-২০ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস হাসান টিটো বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানান।

বিজিবি কর্মকর্তা ফেরদৌস হাসান টিটো বলেন, ‘শুধু ওই এসআই আকবরের জন্য নয়, আমরা সীমান্তে সবসময় সতর্কাবস্থায় থাকি; যেন কোনোক্রমেই সীমান্ত দিয়ে কোনও ধরনের অবৈধ পারাপার না হয়। আমরা সীমান্তে ২৪ ঘণ্টা কাজ করে থাকি। কেউ এই পথ ব্যবহার করে ভারতে যেতে বা ভারত থেকে বাংলাদেশে আসতে পারবে না।

এদিকে হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট কর্তৃপক্ষ জানায়, করোনার কারণে যেহেতু হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দু’দেশের মাঝে যাত্রি পারাপার কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তাই এই পথ ব্যবহার করে কারও ভারতে যাওয়ার কোনও সুযোগ নেই।’

হিলিতে সতর্কাবস্থানে বিজিবিউল্লেখ্য, রায়হান উদ্দিন নামের ওই যুবককে বন্দরবাজার থানা পুলিশ গত শনিবার (১০ অক্টোবর) বিকালে আটক করে। ওই দিন রাতে ফাঁড়িতে তার ওপর নির্যাতন চালায় পুলিশ এবং তাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য টাকা দাবি করে। ভোরে অপরিচিত একটি মোবাইল থেকে ছেলের ফোন পায় রায়হানের বাবা। তাতে ওই ফাঁড়িতে তাকে আটকে রেখে ছেড়ে দেওয়ার জন্য টাকা দাবি করা হচ্ছে বলে জানায় রায়হান। বাবাকে টাকা নিয়ে এসে তাকে উদ্ধারের অনুরোধও করে রায়হান। 

ছেলেকে বাঁচাতে ভোরে তার বাবা টাকা নিয়ে ওই ফাঁড়িতে গেলে তাকে জানানো হয় রায়হান এখন ঘুমাচ্ছে, সকাল ১০টার দিকে আসতে হবে। পরে সকাল ১০টা দিকে গেল তাকে বলা হয় সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে যেতে। সেখানে গিয়ে তিনি জানতে পারেন তার ছেলে মারা গেছে। এরপর মৃত ছেলের শরীরে নির্যাতনের ভয়াবহ চিহ্ন দেখতে পান তিনি। রায়হানের হাতের নখগুলোও উপড়ানো ছিল। 

পুলিশ এরপর দাবি করে রায়হানকে ছিনতাইকারী সন্দেহ করে জনতা গণপিটুনি দেওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। তবে সিটি করপোরেশনের ফুটেজে এর কোনও প্রমাণ মেলেনি। রবিবার সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে তার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। বিকালে ৩টার দিকে ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। এশার নামাজের পর জানাজা শেষে তার লাশ পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়। রায়হানকে পুলিশ হেফাজতে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনাটি রবিবার থেকেই গণমাধ্যমে আলোচিত হচ্ছে। এ ঘটনায় সিলেট কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহতের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি। মামলা দায়েরের পর এর তদন্তভার দেওয়া হয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই)।

দেশসংবাদ/বাট্রি/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  এসআই আকবর   দেশত্যাগ   সীমান্ত  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
দেশে করোনায় আরো মৃত্যু ২০, আক্রান্ত ১৩৩৫
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এফ. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক : মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up