রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১ || ৫ বৈশাখ ১৪২৮
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ জ্বরে ভুগছেন খালেদা জিয়া, বাসাতেই চিকিৎসা হচ্ছে ■ ভারতেও বাংলাদেশিরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন ■ আরও এক সপ্তাহ বাড়ছে লকডাউন! ■ ইলিয়াস আলী গুমের নেপথ্যে বিএনপি! ■ বাতাসেও ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস ■ জুনায়েদ আল হাবীব গ্রেফতার ■ ২৪ ঘণ্টায় আজও ১০১ জনের মৃত্যু ■ পাঁচদিনের রিমান্ডে হেফাজত নেতা মাওলানা জুবায়ের ■ হেফাজতের সহকারী মহাসচিব মাওলানা জালাল গ্রেফতার ■ চট্টগ্রামে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, নিহত ৫ ■ অধ্যাপক তারেক শামসুর রেহমানের মৃতদেহ উদ্ধার ■ সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে
বান্দরবানে রাস্তার কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া
অসীম রায়, বান্দরবান
Published : Friday, 19 February, 2021 at 3:04 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

বান্দরবানে রাস্তার কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া

বান্দরবানে রাস্তার কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া

বান্দরবানের রুমা উপজেলার বটতলীপাড়া-গালেঙ্গ্যা যাওয়া রাস্তার কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজইডি) বাস্তবায়নে প্রায় ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা নির্মাণ কাজে ইটের খোয়া দেড় ইঞ্চির কথা বলা হলেও এতে ব্যবহার হয়েছে-তিন থেকে চার ইঞ্চি বড় ইটের টুকরা।

 বড় আকারের ইটের খোয়া মিলিয়ে রাস্তার কাজ ইতোমধ্যে প্রায় ৫ কিলোমিটার পর্যন্ত মেকাদম হয়ে গেছে। বড় খোয়া দিয়ে মেকদমের কারণে কার্পেটিংয়ের সময় বড় খোয়া-বিটুমিন মেশাতে বিঘিœত হয়ে ফাঁক হতে পারে। এতে কার্পেটিং ওঠে যাবে। ফলে রাস্তার কাজ টেকসই হবেনা বলে মনে করছে স্থানীয়রা।

বটতলী পাড়ার স্থানীয় মাখ্যাই চিং  দেশসংবাদ  কে জানান, রাস্তায় একটি ইটকে মাত্র তিন ভাগ ভেঙ্গে ছোটগুলোর সাথে দিতে দেখেছি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র ও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ১১ কোটি ৮৬ লক্ষ টাকার ব্যয়ে গত বছরের আগস্ট মাসে রুমার-বটতলীপাড়া রাস্তা থেকে গালেঙ্গ্যা অফিস পর্যন্ত ছয় কিলোমিটার রাস্তার কার্পেটিং করণের কাজ শুরু করেন ঠিকাদার রতন কান্তি দাশ।

 জানা গেছে,রুমার ময়ুর পাড়ার পাশে কোলাদাইং ঝিরি আগা থেকে রাস্তার নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে বটতলী পাড়ার পার্শ্ববতী খক্ষ্যংঝিরি কাছাকাছি পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার মেকাদমের কাজ চলছে। রাস্তায় খন্ড খন্ড অংশে মেকাদমে আকারে বড় খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে।

যার ফলে নির্মাণ কাজে নিয়োজিত গাড়ি চলাচলেই এরমধ্যে নিম্নমানের খোয়াগুলো গুড়ি হয়ে বালু-মাটিতে পরিণত হয়েছে। তাছাড়া নির্মাণ কাজে সাইটের এ্যাজিং মেকাদম থেকে পরিস্কার করবার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। এ অবস্থায় রাস্তার কার্পেটিং ধরে রাখতে না পেরে ওঠে যাবার যথেষ্ট সম্ভাবনা থেকে গেছে।

এই ব্যাপারে নির্মান শ্রমিক দেলোয়ার (৩৯ ) বেশ কয়েক ট্র্যাক নরম ইট আনার কথা জানিয়ে বলেন, ওইগুলো শুরুতে দেয়া হয়ে গেছে, এখনতো, এখানে একটু - ওখানে একটু খারাপ খোয়া। এসময় পাশে থাকা আরেক শ্রমিক দেলোয়ারকে দমকিয়ে বলেন, খারাপ খোয়া সব তলে গেছে। বড় খোয়াগুলো রাস্তায় দিলে মজবুত হবে কিনা তা জানতে চাইলে শ্রমিকেরা বলেন, ঠিকাদার ও ইঞ্জিনিয়ার জানে।

 ময়ুর পাড়ার লোকজন জানায়, রাস্তার কাজটি তাদের পাড়ার পাশ থেকেই শুরু। তাই কী পরিমাণ বড় ইটের টুকরো দিয়েছে তা সব তাদের চোখে দেখা। এসব খারাপ কাজের কথা বললে ক্ষেপে যায় ঠিকাদারের লোকজন, জানালেন পাড়া প্রধান কারবারী ক্যশেঅং মারমা।

তিনি আরো বলেন, তার জায়গা থেকে পাহাড় কেটে বালু নিলেও এখনো সব টাকা পরিশোধ করেনি ঠিকাদারের লোকজন।

এই বিষয়ে ঠিকাদার রতন কান্তি দাশ বলেন, খোয়া আকারে বড়, খোয়াগুলো আবার ভাঙ্গিয়ে দিতে বলেছি, নাদিলে খোয়া ভাংছে তাদের কোনো মজুরি টাকা দিবোনা।

নিম্নমানের প্রায় ২ লক্ষ ইট বাইরে থেকে এনে খোয়া ভাঙ্গে রাস্তার তলে দিয়ে ফেলেছেন এ কথা জানতে চাইলে ঠিকাদার রতন কান্তি দাশ আরো বলেন, কিছু ইট নরম আছে, এগুলো জেলার ইঞ্জিনিয়ার কথানুযায়ী রাস্তার এক স্থানে নাদিয়ে বিভিন্ন অংশে দিয়েছি।

এই বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ তোফায়েল আহমদ বলেন, সরেজমিনে গিয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে, আকারে বড় ও নিম্নমানের ইটের খোয়াগুলো তলে দিয়ে রোলিং করা মেকাদমের বিষয়ে করার কিছুই নেই।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এমএইচ/আরএস


আরও সংবাদ   বিষয়:  বান্দরবান  


আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
ভারতেও বাংলাদেশিরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এম. এ হান্নান
যুগ্ম-সম্পাদক
মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
মেবিন হাসান
যোগাযোগ
টেলিফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
সেলফোন : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up