রবিবার, ২০ জুন ২০২১ || ৬ আষাঢ় ১৪২৮
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ শিগগিরই ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ■ প্রতি ভরিতে স্বর্ণের দাম কমল ১৫১৬ টাকা ■ রাজধানীর ফুটপাত থেকে মৃতদেহ উদ্ধার ■ সোমবার ফাইজারের টিকা প্রয়োগ শুরু ■ ৫৩ দিন পর বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া ■ বগুড়ায় লকডাউন ঘোষণা ■ করোনায় আরও ৬৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০৫৭ ■ ইরানের প্রেসিডেন্ট হলেন ইব্রাহিম রাইসি ■ জাতিসংঘের মহাসচিব পদে ২য় মেয়াদে গুতেরেস ■ ২৪ ঘণ্টায় বছরের সর্বোচ্চ বৃষ্টির রেকর্ড ■ রাজধানীতে একই পরিবারের ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার ■ পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ১২ বস্তা টাকা-স্বর্ণালঙ্কার
হাঁড়িভাঙা আম চাষে পাল্টে গেছে সংশ্লিষ্ট এলাকার অর্থনীতি
আফরোজা সরকার, রংপুর
Published : Tuesday, 8 June, 2021 at 6:24 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

হাঁড়িভাঙা আম চাষে পাল্টে গেছে সংশ্লিষ্ট এলাকার অর্থনীতি

হাঁড়িভাঙা আম চাষে পাল্টে গেছে সংশ্লিষ্ট এলাকার অর্থনীতি

রংপুরের মিঠাপুকুর, পীরগঞ্জ, বদরগঞ্জ ও তারাগঞ্জ উপজেলার চাষিদের উৎপাদিত হাঁড়িভাঙা আম এ অঞ্চলের চাহিদা মিটিয়ে পাড়ি জমাচ্ছে দেশের অন্যান্য অঞ্চলে। মিষ্টি আর সুস্বাদু হওয়ায় এই আম নিতে শত শত পাইকার ভিড় জমাচ্ছেন রংপুরের এই ৪ উপজেলায়। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এবার এই হাড়িভাঙা আম প্রায় হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। এতে করে পাল্টে গেছে সংশ্লিষ্ট এলাকার অর্থনীতি। হাঁড়িভাঙ্গা আম বাজারে আসছে ২০ জুন জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন ও আম ব্যবসায়ীরা ।

সরেজমিনে ঘুড়ে দেখা যায়, রংপুরের ৪ উপজেলার আমের ব্যাপক সুখ্যাতি থাকায় তা দেশ ছেড়ে বিদেশেও রপ্তানি হতে শুরু করেছে। বিগত চার-পাঁচ বছর ধরে আমের রাজধানীখ্যাত রাজশাহী তার ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। গত ক’বছরে রাজশাহীর আমের আগের মতো আর কদর নেই। বরং রংপুরের হাঁড়িভাঙা আমের চাহিদার ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকায় রাজশাহীর আমের বাজারে মন্দাভাব লক্ষ করা গেছে।

রংপুর জেলার পদাগঞ্জ ও বদরগঞ্জের স্টেশন বাজার এ অঞ্চলের সবচেয়ে হাঁড়িভাঙা আমের বড় পাইকারি হাট। এ ছাড়াও রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায়ও প্রতিদিন হাঁড়িভাঙা আমের হাট বসতে শুরু করছে। এই হাট থেকে প্রতিদিন পাইকাররা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ট্রাকে ভরে নিয়ে যাচ্ছে হাঁড়িভাঙা আম। রংপুরের ফলের আড়ত ছাড়াও টার্মিনালের পশ্চিম কোণে পদাগঞ্জের আম ফড়িয়াদের নিজস্ব উদ্যোগে বসেছে হাঁড়িভাঙার মিনি হাট, সেখান থেকেও পাইকাররা আম নিয়ে যাচ্ছে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে।

জানা গেছে, হাঁড়িভাঙা আমের সুস্বাদুর কারণে রাজশাহীখ্যাত ফজলি, ল্যাংড়া, গোপালভোগ, খিরসা, অরুনা, আম্রপালি, মল্লিকা, সুবর্ণরেখা, মিশ্রিদানা, নিলাম্বরী, কালীভোগ, কাচামিঠা, আলফানসো, বারোমাসি, তোতাপুরী, কারাবাউ, কেউই সাউই, গোপাল খাস, কেণ্ট, সূর্যপুরী, পাহুতান, ত্রিফলা আম বিক্রিতে ভাটা পড়েছে দেশের সর্বত্র। রাজশাহী অঞ্চলের আম বাগানের মালিকরা রংপুর থেকে হাঁড়িভাঙা আমের চারা নিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে ওই এলাকায় চাষ করে হাঁড়িভাঙ্গা আম তারাও বিক্রির উপযোগী করেছে।
রাজশাহীর দুই-এক জায়গায় হাঁড়িভাঙার ফলন হলেও রংপুরের সেই হাঁড়িভাঙার মতো স্বাদ ও গন্ধ নেই।

মিঠাপুকুরের পদাগঞ্জে গেলে চোখে পড়বে বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে শুধু হাঁড়িভাঙা আমের বাগান। যেদিকে দুই চোখ যায়, সেদিকে শুধু বাগান আর বাগান। এমন কোনো বাড়ির আঙিনা বা উঠান কিংবা ফসলি জমি নেই, যেখানে আমের গাছ রোপণ করা হয়নি। এ অঞ্চলের কুতুবপুর, খোড়াগাছ পাইকারের হাট, পদাগঞ্জ, কদমতলী, পীরের হাট, তালপুকুর, মাঠের হাট, আখড়ের হাট, বদরগঞ্জ হাট ছাড়াও সব এলাকায় হচ্ছে আমের চাষ। এখানকার মাটি আম চাষের সম্পূর্ণ উপযোগী হওয়ায় চাষিরা অন্যান্য ফসলের চেয়ে আম চাষে সবচেয়ে মনযোগী হয়ে উঠছেন।

পর্দাগঞ্জের আব্দুর রহিমের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তিনি আমের বাগান করেছেন ৮ একর জমিতে। গত বছর তিনিই বাজারে প্রথম আম বিক্রি করেন। ওই বছর তার বাগানের আম বিক্রি হয়েছে দুই লাখ টাকায়। এবার তিনি আড়াই লাখ টাকায় বাগানের আম বিক্রি করবে বলেছেন। বাগানের মালিক জানান, হাঁড়িভাঙা আম কিনতে রাজশাহী থেকেও ক্রেতারা পদাগঞ্জে ছুটে আসেন এবারেও তার ভিন্ন হবে না।

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বাগান মালিক ও রংপুরের হাঁড়িভাঙা আমের জনক সালাম সরকার জানান, বাগানের আম বিক্রি করে গত বছর আমি পেয়েছি ৯০ লাখ টাকা। বর্তমানে তিনিই  সবচেয়ে বড় আম বাগানের মালিক। তার বাগানের আম জেলা শহরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্রি হচ্ছে। আম বাগানের মালিকদের মধ্যে খোড়াগাছ পাইকার হাটের নওশাদ হাজী, তার ভাই শওকত হাজী, বাবুল মিয়া ও আনছার হাজী অন্যতম। তাদের প্রতিটি বাগানের আম বিক্রি দশ লাখ টাকা ছাড়িয়ে যায় বলে জানান তিনি।

আম চাষী মুকুল মিয়া বলেছেন, আমের জন্য বিখ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ সারা দেশে হাঁড়িভাঙা আমের বিস্তার ঘটেছে। হাঁড়িভাঙা আম খেলে রোগবালাই কম হয়। চারা লাগানোর এক বছরেই গাছে মুকুল আসে। আর ৫ থেকে ৬ বছর বয়সে গাছে পুরোদমে আম আসতে শুরু করে। এছাড়া বোঁটা শক্ত হওয়ায় গাছ থেকে তা অকালে ঝরে যায় না। পূর্ণাঙ্গ একেকটি আমের ওজন হয় ৪০০ থেকে ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত।

মিঠাপুকুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মান্নান ভূঁইয়া জানিয়েছে- ইতোমধ্যে হাঁড়িভাঙা আম বাজারে আসছে, বিখ্যাত হাঁড়িভাঙ্গা আম আগামী ২০ জুন থেকে বাজারে আসছে  ব্যবসায়ী ও আম চাষীদের সাথে আলোচনা কওে তা জানা গেছে। এবারে আমের বাজার মূল্য প্রায় হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। দেশের বিভিন্ন জেলায় এই আমের ব্যাপক চাহিদা থাকায় বেশ কিছু কৃষিভিত্তিক শিল্পপতি এসব এলাকায় উচ্চমূল্যে জমি কিনে হাঁড়িভাঙা আমের বাগান করছেন এবার।

রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো, ওবায়দুল  রহমান মন্ডল বলেন, রংপুর কৃষি অঞ্চলের পাঁচ জেলায় প্রায় ৬ হাজার ৯৭৯ হেক্টর জমিতে হাঁড়িভাঙ্গাসহ অন্যান্য আম বাগান রয়েছে। এতে গাছের সংখ্যা রয়েছে প্রায় দুই লাখ ৫৭ হাজার। এরমধ্যে শুধুমাত্র রংপুর জেলায় মোট আমের জমি রয়েছে ৩২৮০ হেক্টর । এর মধ্যে হাঁড়িভাঙ্গা হাড়িভাঙ্গা আমের বাগান রয়েছে ১৮৫০ হেক্টর জমিতে ।  আর অন্যান্য জাতের আমের বাগান রয়েছে মাত্র ১৪৩০ হেক্টর জমিতে। জেলায় উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৩ হাজার ৮৩৫ মেট্রিক টন। এর মধ্যে হাঁড়িভাঙ্গা আমের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২৭ হাজার ৯২৫ টন আম।

রংপুর জেলার মধ্যে বদরগঞ্জে সবচেয়ে বেশি ৪০০ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। এছাড়াও রংপুর মহানগর এলাকায় ২৫ হেক্টর, সদর উপজেলায় ৬০ হেক্টর, কাউনিয়ায় ১০ হেক্টর, গঙ্গাচড়ায় ৩৫ হেক্টর, মিঠাপুকুরে ১ হাজার ২৫০ হেক্টর, পীরগঞ্জে ৫০ হেক্টর, পীরগাছায় ৫ হেক্টর ও তারাগঞ্জ উপজেলায় ১৫ হেক্টর জমিতে আমবাগান রয়েছে। মৌসুমের শুরুতে এই আমের দাম কিছুটা কম থাকলে প্রতি কেজি হাঁড়িভাঙ্গা আম ৬০  থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি হয়।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এফএইচ/বি


আরও সংবাদ   বিষয়:  হাঁড়িভাঙা আম  


আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
সোমবার ফাইজারের টিকা প্রয়োগ শুরু
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
সহযোগি সম্পাদক
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
এম. এ হান্নান
সহকারি সম্পাদক
মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
মেবিন হাসান
যোগাযোগ
টেলিফোন
০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবাইল ফোন
০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল
[email protected]
ফেসবুক
facebook.com/deshsangbad10

Developed & Maintenance by i2soft
logo
up