বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১ || ২ আষাঢ় ১৪২৮
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ পরীমনির বিরুদ্ধে গুলশানে ভাঙচুরের অভিযোগ ■ চট্টগ্রামে ৫৫ হাজার ভুয়া ভোটার ■ নরসিংদীতে আ.লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ৮ ■ বিদেশে অর্থপাচার রোধে আসছে ১৪ আইন ■ বাংলাদেশের পাশে আছে চীন ■ আরও ১ মাস বাড়ল বিধিনিষেধ ■ করোনায় আরও ৬০ মৃত্যু, আক্রান্ত ৩৯৫৬ ■ চীন ভ্যাকসিন দেয়ার বিষয়ে কিছু জানায়নি ■ অনুমোদন পাচ্ছে বঙ্গভ্যাক্স ■ জাতিসংঘের জরুরি পদক্ষেপ চায় বাংলাদেশ ■ একই পরিবারের তিনজনকে হত্যা ■ রামেকে করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু
সরকারি শিশু পরিবারে খাদ্য সামগ্রি সরবরাহে
হবিগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারে অনিয়মের অভিযোগ
এসএম সুরুজ আলী, হবিগঞ্জ
Published : Tuesday, 8 June, 2021 at 6:44 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

হবিগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারে অনিয়মের অভিযোগ

হবিগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারে অনিয়মের অভিযোগ

হবিগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারে খাদ্য সামগ্রি সরবরাহের দরপত্রে সরকার নির্ধারিত দরের অতিরিক্ত সোয়া ৫ লাখ থেকে সাড়ে ৫ লাখ টাকা বেশি দরদাতাদের প্রাথমিকভাবে নির্বাচন করা হয়েছে। এছাড়া শিশু পরিবারটিতে ৭০ জন শিশু থাকলেও দর দেয়া হয়েছে ১শ’ জন শিশুর খাদ্য সরবরাহের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সরকারি শিশু পরিবারের (বালক) উপ-তত্ত্বাবধায়ক নিপুন রায় জানান, গত ১ মাসে ৯টি টেন্ডার পড়েছে। এর মাঝে ৩টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন করা হয়েছে। তবে তারা বাজার দর থেকে কেন বেশি দিল সেটি যাচাই করে দেখা হবে। তিনি বলেন, ৭০ জন শিশুর স্থলে ১শ’ জনের খাবার দেয়ার দরপত্র আহ্বান করার কারণ হচ্ছে বছরে আরও শিশু বাড়তে পারে। আর দর বেশি দেয়ার কারণ হলো সরকার নির্ধারিত দর সর্বনিম্ন। এর থেকে বেশি দর দরপত্রে দিতে হবে।

দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা সমাজসেবা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান জানান, টেন্ডারগুলো শুধু খুলে রাখা হয়েছে। কে কোন পণ্যের দাম বেশি দিয়েছে, কে কম দিয়েছে তা এখনও বাছাই হয়নি। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি যাচাই বাছাই করে সামঞ্জস্যপূর্ণ হলেই কাজ দেবে। তিনি বলেন, সামান্য কম বা বেশি হতে পারে। কিন্তু খুব বেশি তফাত হতে পারেনা। এটি মিলিয়ে দেখা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ঠিকাদার জানান, সাধারণত সরকারি বিভিন্ন কাজের যে টেন্ডার আহ্বান করা হয় তাতে সরকার প্রদত্ত দরের থেকে নূন্যতম ৫ শতাংশ কম দর দিয়ে দরপত্র জমা দেয়া হয়। তার উপর লটারির মাধ্যমে কাজ দেয়া হয়। কিন্তু এখানে কেন সরকার প্রদত্ত দরের চেয়ে সোয়া ৫ লাখ টাকা বেশি দর দেয়া হয়েছে তা আমার বোধগম্য নয়। সেটি কিভাবে বাছাইয়ে টেকে তাও বুঝতে পারছিনা। তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষই ভাল বলতে পারবেন।

কাগজপত্র পর্যালোচনা ও সরকারি শিশু পরিবারের দেয়া তথ্যে জানা যায়, হবিগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারে (বালক) খাদ্য সামগ্রি সরবরাহের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়। এতে সরকার খাদ্য সামগ্রিগুলোর বাজার দর হিসেব করে ২৪ লাখ ৫২ হাজার ২১৮ টাকা নির্ধারণ করে দেয়। কিন্তু সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে মেসার্স তোহা এন্টারপ্রাইজকে। এ প্রতিষ্ঠানটি ২৯ লাখ ৭০ হাজার ৯১০ টাকায় দরপত্র জমা দেন। দ্বিতীয় স্থানে রাখা মেসার্স আলী এন্টারপ্রাইজ দেয় ২৯ লাখ ৭৬ হাজার ৯৯০ টাকা এবং তৃতীয় স্থানে থাকা মেসার্স মো. আসাদুজ্জামান দেয় ২৯ লাখ ৯৪ হাজার ৯৯০ টাকা। এ দর ১শ’ জন শিশুর খাদ্যের জন্য দেয়া হয়েছে। অথচ এ শিশু পরিবারটিতে রয়েছে মাত্র ৭০ জন সদস্য।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এফএইচ/বি


আরও সংবাদ   বিষয়:  হবিগঞ্জ   সরকারি   শিশু   পরিবার  


আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
করোনায় আরও ৬০ মৃত্যু, আক্রান্ত ৩৯৫৬
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
সহযোগি সম্পাদক
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
এম. এ হান্নান
সহকারি সম্পাদক
মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
মেবিন হাসান
যোগাযোগ
টেলিফোন
০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবাইল ফোন
০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল
[email protected]
ফেসবুক
facebook.com/deshsangbad10

Developed & Maintenance by i2soft
logo
up