রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১ || ৯ শ্রাবণ ১৪২৮
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ সরকারি কর্মচারীদের সম্পদের হিসাব দেয়ার নির্দেশ ■ বহিস্কার হলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর ■ বাকপ্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে হত্যা ■ দেশে এলো ২৫০ ভেন্টিলেটর ■ আ.লীগের মাসব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা ■ ঈদে সারাদেশে ৯১ লাখ পশু কোরবানি ■ ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ ■ দেশের পথে ‘অক্সিজেন এক্সপ্রেস’ ■ আরও ২১ কোটি টিকার ব্যবস্থা হয়েছে ■ হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর রেকর্ড ■ ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৫ জনের মৃত্যু ■ কুষ্টিয়ায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু
ঘটনা ঘটে গেছে এবং ঘটে চলছে
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Thursday, 17 June, 2021 at 7:29 PM, Update: 17.06.2021 11:41:02 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

মাওলানা আনাস মাদানি

মাওলানা আনাস মাদানি

বর্তমান সময়ে কওমি অঙ্গনে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা ঘটে গেছে এবং ঘটে চলছে, যা নিতান্তই আশঙ্কাজনক এবং ঝুঁকিপূর্ণ। এমনটি বলেছেন, আঞ্জুমানে দাওয়াতে ইসলাহ-এর আমির ও আল্লামা আহমদ শফীর ছেলে মাওলানা আনাস মাদানি।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আহমদ শফীর জীবন, কর্ম, অবদান নিয়ে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। আঞ্জুমানে দাওয়াতে ইসলাহ এ সভার আয়োজন করে।

মাওলানা আনাস মাদানি বলেন, আল্লামা শাহ আহমদ শফীর দেখানো পথেই চলমান সঙ্কটময় পরিস্থিতি থেকে আমাদের উত্তরণের পথ খুঁজে বের করতে হবে।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ তুলে ধরেন মাওলানা রুহুল আমিন খান উজানী। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফরিদাবাদ মাদরাসার মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, ফরিদাবাদ মাদরাসার শায়খুল হাদীস মুফতি নুরুল আমিন, হাটহাজারী মাদরাসার সাবেক মুহাদ্দিস মাওলানা নুরুল ইসলাম জাদীদ, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মাইনুদ্দীন রুহীসহ অনেকে।

মাওলানা আনাস মাদানি আরও বলেন, আমার আব্বাজান তার কর্মজীবনের প্রায় ৮০ বছর দ্বীনের বহুমুখী খেদমত করেছেন। মুসলিম উম্মাহর জন্য রয়েছে তার বিরাট অবদান। তার কর্মময় জীবন নিয়ে পূর্ব থেকেই চলছে গবেষণা, এমনকি অনেকে তার জীবন নিয়ে পিএইচডিও করছেন। তাই দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে জোর দাবি উঠেছে, তার বর্ণিল জীবনকে কাগজের পাতায় স্মারক হিসেবে প্রকাশ করার জন্য। এ প্রেক্ষাপটে আল্লামা আহমদ শফীর পরিবারবর্গ এবং তার হাতেগড়া সংগঠন আঞ্জুমানে দাওয়াতে ইসলাহর যৌথ উদ্যোগে বর্ণাঢ্য স্মারক প্রকাশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দেশের সর্বস্তরের আলেম আব্বাজানের প্রতি আস্থা রেখেছেন।

তিনি (আহমদ শফী) কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা ছিলেন না। তাই তাকে বিশ্বাস করেছেন তারা। তিনি সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীন, শায়খুল আরব ওয়াল আজম হোসাইন আহমদ মাদানি রহমাতুল্লাহি আলাইহির খলিফা, হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার সভাপতি, একজন বুজুর্গ ব্যক্তি ও শায়খুল হাদিস ছিলেন। তিনি কখনও দায়িত্ব এড়িয়ে যাননি। ২০১৩ সালে হেফাজতের ঘটনা পরবর্তী সময়ে আচরণগুলো তার প্রমাণ। তিনি সরকারের সঙ্গে শত্রুতাও দেখাননি এবং তাদের বিভিন্ন সময় বিভিন্ন উপদেশ দিতেও ভুল করেননি। অনেকবার সরকারকে তিনি সতর্কও করেছেন। ফলে এই মধ্যমপন্থায় থাকার কারণে তিনি সরকার থেকে অনেক দাবি আদায় করতে পেরেছেন। কওমি স্বকৃতি তার মধ্যে অন্যতম।

দেশসংবাদ/বিপি/এফবি/এএস


আরও সংবাদ   বিষয়:  মাওলানা আনাস মাদানি  


আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা
২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৫ জনের মৃত্যু
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
সহযোগি সম্পাদক
এনামুল হক ভূঁইয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
এম. এ হান্নান
সহকারি সম্পাদক
মোহাম্মদ রুবাইয়াত আনোয়ার
মেবিন হাসান
যোগাযোগ
টেলিফোন
০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবাইল ফোন
০১৭১৩ ৬০১৭২৯
ইমেইল
[email protected]
ফেসবুক
facebook.com/deshsangbad10

Developed & Maintenance by i2soft
logo
up