ঢাকা, বাংলাদেশ || সোমবার, ১ জুন ২০২০ || ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ সিটি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড প্রস্তুত করার নির্দেশ ■ ফখরুলকে যে প্রশ্ন করলেন হানিফ ■ বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে হামলা ■ তওবা করে নতুন বছর শুরু করি ■ নববর্ষে দেশবাসীকে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ■ অবৈধদের ফেরত না পাঠানোর লিখিত আশ্বাস চায় বাংলাদেশ ■ ২০১৯ সালে কর্মক্ষেত্রে নিহত ৯৪৫ জন শ্রমিক ■ হাইকোর্টে আইনজীবী হতে এবার এমসিকিউ পরীক্ষা ■ আন্তর্জাতিক কলরেট ৬৫ শতাংশ কমাতে যাচ্ছে বিটিআরসি ■ ভারতের নয়া সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে ■ পররাষ্ট্র সচিব হলেন মাসুদ বিন মোমেন ■ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে ঢাকায় আসছেন ম্যারাডোনা
জেল হত্যা দিবস পালিত
রিয়াজুল ইসলাম সবুজ, স্টাফ রিপোর্টার
Published : Sunday, 3 November, 2019 at 7:46 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

জেল হত্যা দিবস পালিত

জেল হত্যা দিবস পালিত

৩ নভেম্বর ১৯৭৫ সনে সংঘঠিত ইতিহাসের নির্মম, বর্বরোচিত ও নৃশংসতম ‘জেল হত্যা দিবস’ স্মরণে বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে আজ ৩ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার সকাল ১০.০০ ঘটিকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের (আব্দুস সালাম হল) কনফারেন্স লাউঞ্জ-৩ (৩য় তলায়), ঢাকায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. এস এ মালেক এর সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় নেতা মতিউর রহমান লাল্টুর সঞ্চালনায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে জাতীয় চার নেতা মুক্তিযুদ্ধের সফল নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের শক্রুরা ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে দেশমাত্রিকার সেরা সন্তান জাতীয় চার নেতাকে শুধু গুলি চালিয়েই ক্ষান্ত হয়নি, কাপুরুষের মতো গুলিবিদ্ধ দেহকে বেয়নেট নিয়ে খুঁচিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে ৭১’র পরাজয়ের জ্বালা মিটিয়েছিল। ইতিহাসের এই নিষ্ঠুর হত্যাকান্ডের ঘটনায় শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয়, স্তম্ভিত হয়েছিল সমগ্র বিশ্ব। কারাগারে নিরাপদে আশ্রয়ে থাকাবস্থায় বর্বরোচিত এ ধরণের হত্যাকান্ড পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল।

সেদিন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বের চরম ব্যর্থতার কারনেই এই জাতীয় চার নেতাকে মৃত্যুবরণ করতে হয়েছিল। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে পারলে দেশ সাংবিধানিক ধারায় পরিচালিত হতো এবং অবৈধভাবে সামরিক শাসন জারি করে জেনারেল জিয়াউর রহমান রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসতে পারতেন না। তিনি জাতীয় চার নেতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং তাদের যে স্বপ্ন ছিল অসম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক এবং শোষণ বৈষম্যহীন একটি আদর্শ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমেই আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করবো।

মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা হত্যাকান্ড ছিল একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর খোন্দকার মোশতাক আহমেদের নেতৃত্বে ষড়যন্ত্রকারীরা জাতীয় চার নেতাকে তাদের সরকারে যোগদানের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর জাতীয় চার নেতা ঘৃনাভরে সেই প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন। এ কারনে তাদের জীবন দিতে হয়। আসলে হত্যাকারীদের ও তার দোসরদের উদ্দেশ্য ছিল পাকিন্তান ভাঙ্গার প্রতিশোধ নিতে, রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ ও সীমাহীন ত্যাগের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জনকারী দেশটিকে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের আবত্তে নিক্ষেপ করতে। তাদের উদ্দেশ্য ছিল পুনর্গঠন ও গণতান্ত্রিকতার পথ থেকে সদ্য স্বাধীন দেশটিকে বিচ্যুত করা এবং বাংলাদেশকে মিনি পাকিস্তান সৃষ্টি করা।

ইতিহাসবিদ সিরাজ উদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা ও জেল হত্যার বিষয়ে একটি নিরপেক্ষ ও স্বাধীন তদন্ত কমিশন গঠন করা জরুরী। তাহলে সেদিনের ঘটনার প্রকৃত চিত্র জাতি জানতে পারবে এবং প্রকৃত অপরাধি চিহ্নিত করা সম্ভব হবে।

সভাপতির বক্তব্যে ডাঃ এস এ মালেক বলেন, খোন্দকার মোশতাক আহমেদ রাজনৈতিকভাবে ও জেনারেল জিয়াউর রহমান সামরিক শক্তির সহায়তার জন্য পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। এরা কখনই মুক্তিযোদ্ধা ছিলনা, দেশপ্রেমিক ছিলনা বরং অনুপ্রবেশকারী হিসেবে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে গুপ্তচর বৃত্তি করা ও পাকিস্তানের স্বার্থ রক্ষার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ও আন্তর্জাতিক চক্রের ক্রীড়ানক হিসেবে কাজ করেছে।

জেল হত্যা দিবস পালিত

জেল হত্যা দিবস পালিত


এদেশে হত্যা, ক্যু ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতির প্রবর্তক ছিলেন জেনারেল জিয়াউর রহমান। তা নাহলে তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের সব কিছুই জানতেন, বঙ্গবন্ধুকে রক্ষার উদ্যোগ নেননি, সেনাবাহিনীর বিপথগামী অফিসারদের দমন না করে বরং, তাদের হত্যাকান্ডে উস্কানি দিয়ে সমর্থন যুগিয়েছেন। সুতরাং জেনারেল জিয়া বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল নায়ক হিসেবে, ইতিহাসে একজন বিশ্বাস ঘাতক, মীরজাফর ও বেঈমান হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবেন।

আরো বক্তব্য রাখেন, বুয়েটের সাবেক প্রভিসি অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. প্রিয়ব্রত পাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ বৈকল্য ড. হাকিম আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্নালিজম বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মফিজুর রহমান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. সাদেকুল আরেফিন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের অধ্যাপক ড. চন্দ্রনাথ পোদ্দার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ ফিরোজ আহমেদ, খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোস্তফা সারওয়ার, নেপালের সাবেক রাষ্ট্রদুত অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক, সংসদ সদস্য ও প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ঢাকা মহাগর শাখার সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট দিদার আলী, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মতিন ভূইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ শহিদুল্লাহসহ দেশের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবীগণ ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রীয় ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ।


দেশসংবাদ/এফএইচ/বি


আরও সংবাদ   বিষয়:  জেল হত্যা দিবস পালিত  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় উদ্ধারকাজে সক্রিয় পুলিশ
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up