ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ || ২৬ আষাঢ় ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ নেপালে সব ভারতীয় টিভি চ্যানেল বন্ধ ■ স্পেনের ৭৩ স্থানে নতুন করে অনেক আক্রান্ত ■ হাঁস-মুরগির দাম কমেছে, মাছবাজারেও স্বস্তি ■ ঢাকায় নারীর ক্ষতবিক্ষত মরদেহ উদ্ধার ■ করোনায় সাহেদের বাবার মৃত্যু ■ অল্প সময়ে চার নেতা হারাল আ.লীগ ■ দেশে করোনা উপসর্গে ১৬৬৭ জনের মৃত্যু ■ আমি প্রেসিডেন্ট হলে ট্রাম্পের সব সিদ্ধান্ত বাতিল ■ বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নরের বয়সসীমা ২ বছর বৃদ্ধি ■ সাহারা খাতুন আর নেই ■ হেফাজতের দু’শীর্ষ নেতার দ্বন্দ্বের অবসান ■ নিখোঁজের পর দ. কোরিয়ার মেয়রের লাশ উদ্ধার
কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙনের শঙ্কায় সরকারি আশ্রয়ন প্রকল্প
ইসমাইল হোসেন বাবু, কুষ্টিয়া :
Published : Sunday, 19 January, 2020 at 11:45 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙনের শঙ্কায় সরকারি আশ্রয়ন প্রকল্প

কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙনের শঙ্কায় সরকারি আশ্রয়ন প্রকল্প

শুষ্ক মৌসুমের সামান্য পানির প্রবাহেও কুষ্টিয়ায় তীব্র ভাঙন হচ্ছে গড়াই নদীর পাড়ে। এতে খোকসা উপজেলার হেলালপুর আশ্রায়ন প্রকল্পসহ আশপাশের এলাকা হুমকিতে পড়েছে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী পিযুষ কৃষ্ণ কুন্ডু বলেন, গড়াই নদীর বাম তীরে খোকসা উপজেলার হেলালপুর আশ্রায়ন প্রকল্প, শহর রক্ষাবাঁধসহ গোটা এলাকার বিভিন্ন স্থাপনা ও জনপদ চরম ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে।

আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে আক্রান্ত এ জায়গা রক্ষায় স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে নদীর ‘মরফোলজিক্যাল চেঞ্জের’ ফলে ওইখানে নদীর বাঁক জনপদে ঢুকে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি। বর্তমানে বালির বস্তা ফেলে এ ভাঙন মোকাবিলার চেষ্টা চলছে বলে জানান এ প্রকৌশলী।
হেলালপুর সরকারি আশ্রায়ন প্রকল্পের বাসিন্দা সুফিয়া খাতুন বলেন, শুষ্ক মৌসুমে আকস্মিক গড়াই নদীর পাড় ভেঙে আমরা এখন চরম বিপদের মুখে।
এই প্রকল্পে আশ্রয় পাওয়া ৩৫টি পরিবারের সবাই সম্বলহীন উদ্বাস্তু বলে জানান তিনি।

তার অভিযোগ-প্রতিবছর ইটভাটার জন্য নদী ও তীর থেকে মাটি তোলার কারণে নিচু হয়ে যাওয়ায় পানি ঢুকে সৃষ্টি হয়েছে এ ভাঙন।এই ভাঙন বন্ধে স্থায়ী ব্যবস্থা না নিলে আমরা যেমন ভাসমান উদ্বাস্তু ছিলাম, আবার তাই হয়ে যাব।

ঘটনাস্থলে জরুরি বালির বস্তা ডাম্পিং কাজ দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড কুষ্টিয়ার উপ-সহকারী প্রকৌশলী (এসও) রফিকুল ইসলাম।
তিনি বলেন, গত ৪ জানুয়ারি শুরু হওয়া এই ভাঙনে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রায় ৫০০ মিটার এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নদীর মাঝে চর জেগে পানি প্রবাহে বাধাগ্রস্ত হওয়ায় প্রবাহমুখের দিক পরিবর্তন হয়েছে এবং নদী তীর থেকে মাটি কেটে নেওয়ার ফলে নিচু হয়ে যাওয়ায় পানি ঢুকে ওই স্থানটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানালেন তিনি।

জায়গাটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, খোকসা শহর রক্ষায় এখানে গ্রোয়েনও (সিমেন্টের ব্লক ফেলা) করা হয়েছিল। সেটাও এখন চরম ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে।

মাটি কাটার অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন করলে এস কে বি ইটভাটার ব্যবস্থাপক গণেশ কুমার জানান তারা নিজেদের জমি থেকেই মাটি কেটে উত্তোলন করেন।
এদিকে, খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী জেরীন কান্তা বলেন, সেখান থেকে যাতে আর কেউ অপরিকল্পিত মাটি খনন করতে না পারে সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  কুষ্টিয়া   সরকারি আশ্রয়ন প্রকল্প   কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী পিযুষ কৃষ্ণ কুন্ডু  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
স্পেনের ৭৩ স্থানে নতুন করে অনেক আক্রান্ত
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
ফাতেমা হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up