ঢাকা, বাংলাদেশ || মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০ || ২৪ চৈত্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ যারা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন, তাদের পুরস্কৃত করা হবে ■ ট্রাম্পের হুমকিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলো ভারত ■  মসজিদের ইমাম করোনা আক্রান্ত, এলাকা লকডাউন ■ বঙ্গবন্ধুর খুনি মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মাজেদ গ্রেফতার ■ করোনায় নিউইয়র্কে আরও ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু ■ এপ্রিলে করোনা ব্যাপক ছড়ানোর আশঙ্কা ■ এবার ফ্রান্সে মৃত্যুর রেকর্ড ■ সৌদি আরবের ৯ শহরে কারফিউ জারি ■ ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিশোধের হুমকি ট্রাম্পের ■ দেশে করোনা উপসর্গ নিয়ে ১২ জনের মৃত্যু ■ হার্ট ও মস্তিষ্কে আঘাত হানছে করোনা! ■ শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানালেন প্রিন্স চার্লস
৩ উপায়ে ডিম খেলে কমবে মেদ
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Friday, 24 January, 2020 at 1:03 PM

ডিম

ডিম

স্বল্প খরচে অধিক পুষ্টি জোগাতে ডিমের জুড়ি নেই। আবার এই ডিম দিয়ে তৈরি হয় নানা ধরনের, নানা স্বাদের খাবার। স্বাদ ও পুষ্টিতে ডিম বরাবরই অনন্য। একটা সময় ধারণা করা হতো ডিমের কুসুম খেলে শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে যায়। তবে আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান তা অস্বীকার করছে। বরং ডিমের কুসুম ক্ষতিকর কোলেস্টেরলকে কমিয়ে উপকারী কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়।

এদিকে ওজন বাড়াতে ডিম কোনো প্রভাব ফেলে না। তেল-মশলায় জড়িয়ে রান্না করা যেকোনো খাবারই আপনার ওজন বাড়াবে। তেল-মশলাযুক্ত খাবার প্রতিদিন খেলে মেদ তো বাড়বেই! তাই মেদ বৃদ্ধির ভয়ে খাবার তালিকা থেকে ডিম বাদ দেয়ার কোনো যুুক্তি নেই। বরং এই ডিমই আপনাকে মেদ কমাতে সাহায্য করতে পারে। আবার শরীরও পুষ্টি পাবে সঠিকভাবে। তাই কষা মশলায় ভুনা ডিম বা পোচ-ডিমভাজা নয়, ডিম খান এই উপায়ে-

পানি পোচ: ডিম পোচ বলতে আমরা যা বুঝি তা আসলে পোচ নয়, ডিম ফ্রাই। পানির ভেতর ভিনেগার মিশিয়ে তাতে ডিম ছেড়ে দিয়ে ডিম পোচ তৈরি করা হয়। পানি পোচ তৈরি করার জন্য একটি হাঁড়িতে পানি নিয়ে তাতে অল্প ভিনেগার মিশিয়ে নিন। পানি ফুটে উঠলে তাতে ডিম ভেঙে ছেড়ে দিন। কিছুক্ষণ পরই পোচটিকে আলতো করে তুলে নিন পানি থেকে। ডিমের সবটুকু পুষ্টিগুণ মেলে এই পোচ থেকে। পেটে মেদ জমার ভয় থাকে না।

ডিম

ডিম


সালাদ: যেকোনো রকম সালাদই আমাদের শরীরের জন্য বেশ উপকারী। কিছু সালাদে যোগ করতে পারেন ডিম। পালং, শশা, ব্রকলি, সেদ্ধ করা গাজর, মটরশুটি, টমেটো-পেঁয়াজের সালাদের সঙ্গে মিশিয়ে দিন সিদ্ধ ডিমের কুঁচানো অংশ। এর সঙ্গে মেশান গোলমরিচ ও লেবুর রস। এতে পুরো ডিমের পুষ্টিগুণ তো মিলবেই, পাশাপাশি শাক-সবজির কারণে মেদ ঝরবে দ্রুত।

ডিম

ডিম


ওটমিল ও ডিম: ওটমিল পাচনমূলক অ্যাসিড ক্ষরণে বাধা দেয়, তাই ওটমিল খেলে সহজে ক্ষুধা পায় না। ডিমের সঙ্গে ওটমিল মিশিয়ে খেতে পারেন। ওটমিল শরীরে বাড়তি কোলেস্টেরল ও ট্রাইগ্লিসারাইড জমার পথে বাধা দেয়। আর ডিম জোগায় প্রোটিন। ওটমিল ও ডিম একসঙ্গে খেলে মেদ আর বাড়তেই পারবে না।

দেশসংবাদ/জেএন/এনকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  ডিম   মেদ  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft