ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ || ২০ চৈত্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ আল্লাহর পক্ষ থেকে সতর্কবার্তা ■ হাসপাতাল-ক্লিনিক-চেম্বার বন্ধ থাকলে ব্যবস্থা ■ করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন খালেদা জিয়া ■ পর্যাপ্ত প্রস্তুতি না থাকায় আমেরিকায় নার্সদের বিক্ষোভ ■ করোনায় পোল্ট্রি-ডেইরি শিল্পে ক্ষতি ২ হাজার কোটি টাকা ■ আসছে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজ ■ উন্নয়নশীল দেশগুলোকে বিশ্বব্যাংকের ১৯০ কোটি ডলার ■ সিঙ্গাপুরের মোস্তাফা সেন্টার বন্ধ ঘোষণা ■ রাস্তায় টাকা ছিটিয়ে ডিএসসিসি কর্মকর্তার তামাশা! ■ প্রতি উপজেলার দু’জনের নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী দেননি! ■ এপ্রিলের শেষে করোনা নিয়ন্ত্রণে আসবে ■ করোনার ধাক্কায় ১৫ মাসে সর্বনিম্ন রেমিট্যান্স
রক্ষক থেকে ভক্ষকের ভূমিকায় রাজউক
দেশসংবাদ, ঢাকা :
Published : Wednesday, 29 January, 2020 at 3:12 PM, Update: 29.01.2020 5:32:40 PM

টিআইবির সংবাদ সম্মেলন

টিআইবির সংবাদ সম্মেলন

রাজউক ও দুর্নীতি সমার্থক বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি বিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেসি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ’র (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। তিনি বলেন, রাজউক নিজেদের দায়িত্ব ভুলে গিয়ে এখন ব্যবসায়ী, মুনাফাকারী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। তাদের দায়িত্ব হলো নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা রাখা। কিন্তু তারা রক্ষক থেকে ভক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে রাজউক নিয়ে টিআইবির গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশকালে এসব কথা বলেন ইফতেখারুজ্জামান। 

রাজউকের তীব্র সমালোচনা করে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, রাজউকের গোড়ায় গলদ। এজন্যই দুর্নীতি অনিয়ম বেশি। তারা রক্ষক থেকে ভক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। পরিণত হয়েছে এক মুনাফাকারী ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে। তাদের কর্মকাণ্ডে জবাবদিহিতা নেই। নিয়োগ থেকে শুরু করে প্রতিটা খাতে দুর্নীতি। এখন সময় এসেছে নতুন স্বাধীন একটি প্রতিষ্ঠান করার। নির্বাচন কমিশন কিংবা দুদকের মতো নামেই স্বাধীন প্রতিষ্ঠান করলে কোনো লাভ হবে না। সত্যিকার অর্থেই একটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠান যেন হয়, যারা নিয়ন্ত্রকের ভূমিকায় থাকবে। অার রাজউক তারা ব্যবসা পরিচালনা করুক। 

‘রাজউকের বোর্ডে যারা নিয়োগ পান, তাদেরকে কী ধরনের মাপকাঠিতে নিয়োগ দেওয়া হয়? কোনো যোগ্যতা নির্ধারিত না থাকায় রাজনৈতিক নেতাদের জন্য এটি এক অাকর্ষণীয় পদ। রাজউক একটা জায়গায় সফল, তারা মুনাফা অর্জনকারী প্রতিষ্ঠান, সেটার কারণেই তারা রক্ষক থেকে ভক্ষক। তারা এতো দিনেও জনবান্ধব হতে পারেনি। রাজউক অার দুর্নীতি একাকার, এ ধারণা এখন প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে।

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ১৪ দফা সুপারিশ করেছি। রাজউকের দায়িত্ব অন্য একটি প্রতিষ্ঠানে হস্তান্তর জরুরি। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা দরকার। দরকার আর্থিক ব্যবস্থাপনায় স্বচ্ছতা। 

‘রাজউককে প্রাতিষ্ঠানিক হতে হবে। জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা পালন করতে হবে তাদের। তাহলেই তা সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান হবে। সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় জবাবদিহিতার কথা শুনি, সেটা অঙ্গীকার। বাস্তবায়ন অার অঙ্গীকার দুটো ভিন্ন জিনিস।’ 

রাজউকের কোন কর্মকর্তারা দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত এসব বিষয়ে তথ্য আছে কী না জানতে চাইলে ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ব্যক্তির দুর্নীতি প্রকাশ করা টিআইবির দায়িত্ব নয়, এটা রাষ্ট্র তথা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বা আইনশৃংখলা বাহিনীর দায়িত্ব। রাজউকের দুর্নীতি রোধে দুদকের প্রাধান্য দেওয়া উচিত। 

দেশসংবাদ/বানি/এসআই


আরও সংবাদ   বিষয়:  রাজউক   ট্রান্সপারেসি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ   টিআইবি  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft