ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০ || ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ সৌদিতে করোনায় এত বাংলাদেশির মৃত্যু কেন? ■ আগুন নিয়ে খেলবেন না ■ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২৮২৮, মৃত্যু ৩০ ■ সেপ্টেম্বরে আসছে ২০০ কোটি করোনা ভ্যাকসিন ■ নাসিমের সফল অস্ত্রোপচার, দোয়া কামনা ■ ভয়াবহ হয়ে উঠছে পাকিস্তানের করোনা পরিস্থিতি ■ করোনায় উচ্চ মৃত্যু ঝুঁকিতে যারা ■ করোনায় অধ্যাপক ডা. এসএএম কিবরিয়ার মৃত্যু ■ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা ■ করোনায় দেশে ১৮ চিকিৎসকের মৃত্যু ■ কখনোই করোনা আক্রান্ত হবেন না যারা ■ দেশবাসির দোয়া চেয়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ
বেরোবি মেডিকেলে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি
শিপন তালুকদার, বেরোবি
Published : Monday, 10 February, 2020 at 3:56 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

চিকিৎসকদের স্বেচ্ছাচারিতায় প্রতিনিয়ত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসা নিতে আসা শিক্ষার্থীরা।

সঠিক সময়ে মেডিকেল সেন্টারে না আসা, নির্ধারিত সময়ের আগেই  মেডিকেল সেন্টার বন্ধ করা, রোগীদের বসিয়ে রেখে ফেসবুক চালানো, বাসায় চলে যাওয়া, অ্যাম্বুলেন্স দিতে গড়িমসি করা, মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ দেওয়াসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের দায়িত্বরত চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক-অনাবাসিক দশ হাজার শিক্ষার্থীর প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসক রয়েছেন পাঁচজন। তাদের মধ্যে একজন ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ে আছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী, মেডিকেল সেন্টারের নিয়োগপ্রাপ্ত চিকিৎসকদের অফিস সময় ছুটি বাদে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। কিন্তু নিয়ম না মেনেই অফিস সময় শিফটে ভাগ করে তিন ঘণ্টা করে ডিউটি করেন তারা।

প্রশাসনকে না জানিয়ে শিফট ভাগ করার পরও মাঝেমধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা একজন চিকিৎসককেও পাওয়া যায় না মেডিকেল সেন্টারে। সকাল ৯টায় আসার কথা থাকলেও দুপুর ১২টায় এসে বিকেল ৪টার মধ্যেই চলে যান তারা। ফলে অসুস্থ শিক্ষার্থীরা সেবা না পেয়ে চার কিলোমিটার দূরে রংপুর মেডিকেল কলেজ বা বিভিন্ন বেসরকারি মেডিকেল সেন্টারে যেতে বাধ্য হন।

বিভিন্ন সময় ভোগান্তির শিকার হয়ে একাধিক শিক্ষার্থীকে চিকিৎসকদের অনিয়মের বিষয়ে পোস্ট দিতে দেখা যায় ফেসবুকে।

কয়েকদিন আগে ফেসবুকে একটি ছবি ভাইরাল হয়। সেখানে দেখা যায়, চিকিৎসা নিতে আসা অসুস্থ শিক্ষার্থীকে বসিয়ে রেখে মোবাইলের স্ক্রিনে তাকিয়ে আছেন চিকিৎসক। ছবিটি ভাইরাল হলে চিকিৎসকদের নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। ভুক্তভোগী বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রিপন জানান, চিকিৎসকের কাছে অসুস্থতার কথা বলছিলাম আর তিনি ফেসবুক চালাচ্ছিলেন। তখন আমার বন্ধু ছবিটি তুলেছিল।

অভিযুক্ত চিকিৎসক অলক কুমার এ বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। আরেক ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী মুত্তাকিন বলেন, 'মেডিকেল সেন্টারে গিয়ে চিকিৎসক পাওয়া যায় না। কয়েকদিন আগে অসুস্থ অবস্থায় মেডিকেল সেন্টারে গেলে আমাকে অপেক্ষা করতে বলে ভিসি স্যারের বাংলোতে যান তিনি। দেড় ঘণ্টা বসে থাকার পর কর্মচারী বলেন, চিকিৎসক চলে গেছেন।'

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে মেডিকেল অফিসার শাহরিয়ার বলেন, 'নন স্টপ সেবা দেওয়ার লক্ষ্যেই আমাদের ডিউটি নিজেরা ভাগ করে নিয়েছি।

অ্যাম্বুলেন্স দিতে গড়িমসির ব্যাপারে তিনি বলেন, অনেক সময় আমরা যাচাই করার জন্য বিভাগের স্যারের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে বলি। তারা বললে দিয়ে দিই।

সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ বলেন, চিকিৎসকদের অফিস সময় শিফটে ভাগ করার বিষয়টি আমার জানা নেই।

তিনি আরও বলেন, একজন চিকিৎসক ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ে আছেন। তিনি অফিসে যোগ দিলেই সব সমাধান হবে।

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/এনকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  বেরোবি   মেডিকেলে শিক্ষার্থী   ভোগান্তি  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
সৌদিতে করোনায় এত বাংলাদেশির মৃত্যু কেন?
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up