ঢাকা, বাংলাদেশ || রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০ || ২১ চৈত্র ১৪২৬
শিরোনাম: ■ অবশষে পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত ■ নিউইয়র্কে ২৪ ঘণ্টায় ৬৩০ জনের মৃত্যু ■ ১১ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার আহ্বান ■ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত খেলাধুলা বন্ধ থাকবে ■ কারখানায় না এলে শ্রমিকদের চাকরি যাবে না ■ সব ভবিষ্যদ্বাণীকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েছে করোনা ■ রোববার থেকে ১০ টাকায় চাল ■ চীনে করোনায় মৃত্যু ৪৭ হাজার ■ বাংলাদেশে ২০-৫০ লাখ মৃত্যুর আশঙ্কা অতিরঞ্জিত ■ বাংলাদেশকে ১০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক ■ পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ■ অকারণে বাইরে গেলে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে
করোনাভাইরাস
অতিবেগুনি রশ্মী দিয়ে ব্যাংকনোট জীবাণুমুক্ত
দেশসংবাদ ডেস্ক
Published : Wednesday, 19 February, 2020 at 10:18 AM, Update: 22.02.2020 12:54:08 PM

করোনাভাইরাস

করোনাভাইরাস

করোনাভাইরাস বিস্তার রোধে চীনে পুরনো ব্যাংক নোটের সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি এসব নোটকে জীবাণু মুক্ত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

পিপলস ব্যাংক অব চায়নার প্রধান ফান উফেই এমন তথ্য জানিয়েছেন।-খবর জি নিউজের

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে শত শত মানুষ মারা যাচ্ছেন। এই মহামারী থামানোই যাচ্ছে না। তবে এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই আরও কঠোর ও জোরদার করছে চীন সরকার।

দেশটির কয়েকটি শহর ইতিমধ্যে অচল করে দেয়া হয়েছে। ব্যাংকটি বলছে, ভাইরাস ছড়ানোর ক্ষেত্রে অন্যতম প্রধান ভূমিকা নিতে পারে মুদ্রা নোট। সেকথা মাথায় রেখে পুরনো নোটকে আলট্রা ভায়োলেট রশ্মি দিয়ে কিংবা তাপ দিয়ে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে।

এরপর টানা ১৪দিন ওইসব নোটগুলোকে ব্যাংকেই রেখে দেয়া হচ্ছে। তার পরে তা বাজারে ছাড়া হচ্ছে।

চীনের মূল ভূখণ্ডের বাইরে নভেল করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত তাইওয়ান, ফ্রান্স, হংকং, ফিলিপিন্স ও জাপানে পাঁচজনের প্রাণ গেছে। সব মিলিয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ১৮৭৩ জনে।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত প্রায় ১১ হাজার মানুষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে উহানসহ কয়েকটি শহর গত জানুয়ারি থেকেই কার্যত অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। রোববার থেকে পুরো হুবেই প্রদেশে যানবাহন চলাচলের ওপর নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

জরুরি সেবার গাড়ি ছাড়া অন্য কোনো ধরনের যানবাহন বরে না করতে বলা হয়েছে বাসিন্দাদের। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত কলকারাখানা বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

এই হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকেই গতবছরের শেষে নভেল করোনাভাইরাস ছড়াতে শুরু করে। দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে আসার কোনো লক্ষণ এখনও দেখা যাচ্ছে না।

দেশসংবাদ/জেআর/এনকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  করোনাভাইরাস   চীন  



মতামত দিতে ক্লিক করুন
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft