ঢাকা, বাংলাদেশ || শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০ || ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
Desh Sangbad
শিরোনাম: ■ বাড়ি বাড়ি প্রশ্ন পাঠিয়ে প্রাথমিকের পরীক্ষার নেয়া হচ্ছে ■ এই ইনহেলার ফুসফুসে করোনা সংক্রমণ রুখে দিতে পারে ■ সেপটিক ট্যাংকে পড়ে মা-ছেলের মৃত্যু ■ ওয়াশিংটন ডিসি ধীরে ধীরে চালু হচ্ছে ■ পিসিআর ল্যাবের পরীক্ষায়ও ডা. জাফরুল্লাহর করোনা পজিটিভ ■ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধের হুমকি ■ আরও ২ ইউপি চেয়ারম্যান ও ৩ মেম্বার বরখাস্ত ■ ছুটি শেষ, ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় আসছে মানুষ ■ ৩১ মে থেকে লঞ্চ চলবে, বাড়বে ভাড়া ■ ১০ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ একমাসের মধ্যে ■ মেয়েকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা বাবার! ■ ভারতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত ৬,৫৬৬, মৃত্যু ১৯৪
প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যা করে মসজিদে নামাজ পড়াল মুয়াজ্জিন
মোঃ আজিজুর রহমান ভূঁঞা বাবুল, ময়মনসিংহ
Published : Friday, 27 March, 2020 at 7:38 PM, Update: 27.03.2020 7:46:19 PM
Zoom In Zoom Out Original Text

প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যা করে মসজিদে নামাজ পড়াল মুয়াজ্জিন

প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যা করে মসজিদে নামাজ পড়াল মুয়াজ্জিন

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে প্রেমিকা তাকমিন (২০) নামে এক যুবতীকে গভীর রাতে মোবাইলে ডেকে এনে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ গাছে ঝুলিয়ে রেখে স্থানীয় মসজিদে আযান দিয়ে ফজরের নামাজে ইমামতি করেন মুয়াজ্জিন প্রেমিক আশিকুল হক (২৩) এবং তাকে সহায়তাকারী বন্ধুরাও নিজেরা নামাজ পড়েন। 

এ ঘটনার তিনদিন পর মোবাইল কল লিস্টের সূত্র ধরে পুলিশ ওই যুবতী হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে এক মাদ্রাসাছাত্রকে আটক করেছে।

গত সোমবার (২৩ মার্চ) দিনগত শেষ রাতের দিকে গফরগাঁও উপজেলার যশরা ইউনিয়নের পাড়া ভরট গ্রামে ওই যুবতীকে ডেকে এনে ধর্ষণ করে হত্যা করে মুয়াজ্জিন ও তার বন্ধুরা। পরে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ (মমেক)হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

নিহত প্রেমিকা তাকমিন গফরগাঁও উপজেলার পাড়াভরট গ্রামের আব্দুল মতিনের মেয়ে এবং হত্যাকারী প্রেমিক মোঃ আশিকুল হক স্থানীয় আঠারদানা জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন ও পাড়াভরট গ্রামের জামিয়া আরাবিয়া কাসেমুল উলুম কওমী মাদ্রাসার কিতাব বিভাগের ছাত্র। প্রেমিক আশিকুল হক নান্দাইল উপজেলার তারাপাশা গ্রামের আইনাল হকের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত তাকমিনার সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল মুয়াজ্জিন আশিকুল হকের। প্রেমিক আশিকুল হক সোমবার (২৩ মার্চ) দিনগত রাত তিনটার দিকে তাকমিনকে মোবাইলে কল করে পালিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে নিয়ে আসে। পরে কৌশলে সেখানে তাকমিনকে ধর্ষণ করে আশিকুল।

এ সময় সেখানে আগে থেকেই উৎ পেতে ছিল আশিকুলের বন্ধু মাহফুজ ও একই মাদ্রাসার ছাত্র নান্দাইল উপজেলার তারাপাশা গ্রামের সাইদুলের ছেলে আরিফ (১৮)। পরে মাহফুজ ও আরিফ যুবতী তাকমিনের হাত, পা ও মুখ চেপে ধরে ও প্রেমিক আশিকুল তার মাথার পাগড়ী দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে।

আশিকুল, মাহফুজ ও আরিফ মিলে তাকমীনের লাশ টেনে, হিঁচড়ে মসজিদের লাশ একটি জামগাছের ডালে ওড়না দিয়ে বেঁধে ঝুলিয়ে রাখে। কিছুক্ষণ পর ফজরের আজান দেয়ার সময় হলে মসজিদের মোয়াজ্জিন আশিকুল আজান দেয়। মুসল্লিরা মসজিদে আসলে ওইদিন আঠারদানা জামে মসজিদের ইমাম মোঃ মোজাম্মেল হক (৪৭) নিজে মসজিদে না আসায় তার অনুপস্থিতিতে ফজরের নামাজে ইমামতি করেন মোয়াজ্জেম আশিকুল হক। এ সময় মুসল্লিদের সাথে মাহফুজ, আরিফও নামাজ আদায় করে। নামাজ শেষে মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বের হওয়ার পর তাকমিনের লাশ একটি জামগাছের ডালের সঙ্গে বাধা অবস্থায় দেখতে পায়। এসময় লাশটি গাছের ডালের সাথে ওড়না দিয়ে গলা বাধা ছিল। নিহতের পরিধেয় বস্ত্র বিভিন্ন জায়গায় ছেঁড়া ছিল এবং পা মাটিতে ছিল। লাশের পশে একটি মোবাইলও পড়ে ছিল। 

মুসল্লিরা ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিক স্থানীয় যশরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম রিয়েলকে জানায়। পরে চেয়ারম্যান রিয়েল গফরগাঁও থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মমেক মর্গে প্রেরণ করে।

এদিকে ঘটনার পর ময়মনসিংহ সিআইডির ক্রাইমসিন প্রধান মোহাম্মদ ইউসুফের নেতৃত্ব সিআইডির একটি বিশেষ টিম এবং গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকারের নেতৃত্বে থানার একটি বিশেষ টিম ঘটনাস্থল মঙ্গলবার সারাদিন ঘিরে রাখে। বিকেলে নিহত তাকমিনের বাবা আব্দুল মতিন বাদী অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে গফরগাঁও থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকালে গফরগাঁও সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হায়দার চৌধুরী, গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত(ওসি) অনুকুল সরকার ও মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আহসান হাবীবের নেতৃত্বে গফরগাঁও থানার একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে মাহফুজকে আটক করে।

গফরগাঁও সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হায়দার চৌধুরী এ ব্যাপারে বলেন, ‘তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করতে পেরেছি। তবে বাকি জড়িতদের গ্রেফতারের স্বার্থে এখন কিছু বলা যাবে না। পরে ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের বিস্তারিত বলা হবে বলেও জানান তিনি।’

দেশসংবাদ/প্রতিনিধি/আইশি


আরও সংবাদ   বিষয়:  প্রেমিকা   ধর্ষণ   মসজিদ   মুয়াজ্জিন  




আপনার মতামত দিন
আরো খবর
করোনা আপডেট
টিকা না আসা পর্যন্ত করোনাকে সঙ্গী করেই বাঁচতে হবে
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর >>
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে আমরা
English Version
More News...
সম্পাদক ও প্রকাশক
এম. হোসাইন
উপদেষ্টা সম্পাদক
ব্রি. জে. (অব.) আবদুস সবুর মিঞা
এনামুল হক ভূঁইয়া
যোগাযোগ
ফোন : ০২ ৪৮৩১১১০১-২
মোবা : ০১৭১৩ ৬০১৭২৯, ০১৮৪২ ৬০১৭২৯
ইমেইল : [email protected]
Developed & Maintenance by i2soft
logo
up